টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

কক্সবাজারে দুটি অস্ত্র কারখানার সন্ধান, আটক ৬

চট্টগ্রাম, ০৪  ডিসেম্বর  ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: জেলার চকরিয়া উপজেলার চরনদ্বীপ এলাকায় দুটো অস্ত্র কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

রোববার র‍্যাব ৭ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল মিফতাহউদ্দিন আহমদ বলেছেন, ওই কারখানা দুটোতে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে অনেক দেশীয় অস্ত্র ও বিপুল পরিমাণে গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযানে ছয়জনকে আটক করা হয়েছে।

র‌্যাব-৭ এর কক্সবাজারের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মাহমুদ হাসান তারিক  বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি সংঘবদ্ধ অস্ত্র ব্যবসায়ী ও অস্ত্র তৈরির কারিগররা দীর্ঘদিন ধরে দেশীয় অস্ত্র তৈরি করে এলাকায় স্থানীয় সন্ত্রাসী, অস্ত্র ব্যবসায়ী, অবৈধ অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা ও ডাকাতদের কাছে অস্ত্র বিক্রি করে আসছিল। এর ভিত্তিতে রোববার ভোর চারটা থেকে সকাল ১০টা পর্যন্ত অভিযান চালানো হয়। এ সময় অস্ত্র কারিগররা দৌড়ে পালাতে চেষ্টা করলে চারদিকে ঘিরে ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় ২০টির অধিক অস্ত্র, অস্ত্র তৈরির যন্ত্রসহ বিভিন্ন দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।’

মেজর মাহমুদ হাসান তারিক ছাড়াও অভিযানে নেতৃত্ব দেন সিনিয়র এএসপি শাহেদা সুলতানা এবং এএসপি সৈয়দ মোহসিনুল হক।

গ্রেফতার হওয়া অস্ত্র ব্যবসায়ী ও কারিগররা হলেন,  কুতুবদিয়ার উত্তর ধুরংয়ের নুর মোহাম্মদের পুত্র আব্দুল মান্নান (৩৫)ও আইয়ুব খান (২৭), চকরিয়ার ইতমনি গ্রামের মৃত আব্দুল বাসদের পুত্র নুরুল আলম (৫০), কুতুবদিয়ার কাজির পাড়ার আমির হোসেনের পুত্র মহিন মিয়া (২৪)। এই চারজনের স্বীকারোক্তি অনুসারে পরে চিরিংগা ইউনিয়নের চরনদ্বীপ একানব্বই পাড়ায় অভিযান চালিয়ে তাদের সহকর্মী জোনুয়ারা বেগম (৩৮) ও ফাঁসিয়াখালীর চাইর খালীর নুরল্লা (৪৫)।

উদ্ধার করা অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে, ২০ টি বিভিন্ন ধরনের সক্রিয় অস্ত্র (এসবিবিএল ৮টি, ডিবিবিএল- একটি, পয়েন্ট ৩০৩ দেশীয় রাইফেল-দুটি, পয়েন্ট ২২ দেশীয় রাইফেল একটি এবং ওয়ান শুটারগান- আটটি), ৪৯ রাউন্ড তাজা গুলি (৪৫ রাউন্ড শর্টগানের গুলি, চার রাউন্ড পয়েন্ট ৩০৩ দেশীয় রাইফেলের গুলি), পোচ তিনটি, পোচ বেল্ট-দুটি এবং অস্ত্র তৈরির মেশিন ও যন্ত্রাংশ (লেথ মেশিন-দুটি,  হাত ড্রিল একটি, হেক্সা মেশিন-দুটি, হেক্সাব্লেড, ট্রিগার গার্ড-তিনটি, বাট-একটি, পাইপ-চারটি, হাতুড়ি-তিনটি,  স্ক্রু ড্রাইভার, রেত, কাটিং মেশিন, বিশেষ ধরনের প্লাস, পাইফ-চারটি, ট্রিগার গার্ড-তিনটি, বাট-একটি, হাতুড়ি-তিনটি, বাটাল, স্পিং, নাট-ভোল্ট ইত্যাদি)

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত