টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

দেশের অর্থনীতি দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে: চট্টগ্রামে শিল্পমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ০৩ ডিসেম্বর  ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাত দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূল চালিকাশক্তি উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেছেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাতের উপর ভর দিয়েই দেশের অর্থনীতি দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। রফতানি প্রবৃদ্ধি, পণ্য বৈচিত্রকরণ, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, দারিদ্র বিমোচনসহ দেশের সার্বিক আর্থ-সামাজিক অগ্রগতিতে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাতের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে।

শনিবার (৩ ডিসেম্বর) চট্টগ্রামে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক এসএমই মেলা-২০১৬ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। নগরীর আগ্রাবাদে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে তিনদিন ব্যাপি এ মেলার আয়োজন করছে চট্টগ্রাম চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, দেশের শতকরা ৯০ ভাগ শিল্প ও ব্যবসা এসএমই খাতের আওতাভুক্ত। এমএমই খাত দেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রমের ৭০ শতাংশ নিয়ন্ত্রণ করে। শিল্পকর্মসংস্থানে এ খাতের বিরাট অবদান রয়েছে। শিল্পকর্মসংস্থানের শতকরা ৮০ থেকে ৮৫ ভাগ সৃষ্টি হচ্ছে এ খাত থেকে। এসএমই খাত দেশের মোট অভ্যন্তরীণ উৎপাদনের ৩০ থেকে ৩৫ ভাগ যোগান দিয়ে থাকে।

তিনি বলেন, টেকসই ও পরিবেশবান্ধব শিল্পায়নের লক্ষ্যে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা টেনারি শিল্পকে হাজারীবাগে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে। একইভাবে অন্যান্য যেসব শিল্প বিচ্ছিন্নভাবে ছড়িয়ে আছে সেগুলোকে এক জায়গায় নিয়ে এসে সব ধরনের সহায়তা দেওয়ার চিন্তাভাবনা সরকারের আছে। বিচ্ছিন্নভাবে থাকা কলকারখানা, কেমিকেল শিল্প, প্লাস্টিক ও মুদ্রণ শিল্পকে এক জায়গায় এনে প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

এসএমই খসড়া নীতিমালা প্রণয়ন করা হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাতে দক্ষতা বাড়াতে শিগগির জাতীয় এসএমই নীতিমালা ঘোষণা করা হবে। এ নীতিমালা চূড়ান্ত করার আগে চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তা ও উদ্যোক্তা সংগঠনের কাছ থেকে সুপারিশ নেওয়া হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য এম এ লতিফ বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ব্যাংক ঋণ নিতে অনেক ঝামেলা পোহাতে হয়। এ বিষয়ে শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পখাতের উন্নয়নে সহায়তা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করে ইতিবাচক সিদ্ধান্ত নেওয়ার আহবান জানান তিনি।

তিনি বলেন, দেশের ঋণখেলাপীরা সবাই বড় বড় ব্যবসায়ী, এরা কোন উদ্যোক্তা নন। অথচ উদ্যোক্তা যারা তারা কোন ঋণ পাচ্ছেন না। বাংলাদেশ ব্যাংকের যে রিজার্ভ মানি তা দেশের ১০০ জন ব্যবসায়ীর কাছে আছে। এই টাকা ১৬ কোটি মানুষকে ব্যবহারের সুযোগ না দিলে দেশ এগিয়ে যাবে না।

চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার সোমনাথ হালদার, জেলা প্রশাসক সামসুল আরেফিন, চেম্বারের সহসভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, চেম্বার পরিচালক অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), চেম্বারের পরিচালকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দেশিয় পণ্যের প্রদর্শন ও বিপণনের মাধ্যমে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প বিকাশের লক্ষ্যে আয়োজিত এ মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে।

মতামত