টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পাহাড়ে উন্নয়নের জোয়ার অব্যাহত থাকবে: ওবায়দুল কাদের

করিম শাহ
রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি

menesterচট্টগ্রাম, ২৯  নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস)::  পার্বত্যবাসীর উন্নয়নে সরকার খাগড়াছড়িতে ১৮টি ব্রীজ নির্মান করছে। ভূমি বিরোধ নিস্পত্তিতে সরকার আইন প্রনোয়ন করেছে। বর্তমান সরকারের মেয়াদের মধ্যে শান্তিচুক্তির ৯০ ভাগ অক্ষরে অক্ষরে বাস্তবায়ন করা হবে। এর আগে মন্ত্রী বিদ্যুৎ ব্যবস্থা, পার্বত্যঞ্চলের সড়ক, শিক্ষ ব্যবস্থার উন্নয়নে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন পার্বত্য চট্টগ্রামে উন্নয়নের রূপকার একমাত্র শেখ হাছিনা সরকার এর ধারাবাহিকতায় পার্বত্য চট্টগ্রাম কোন ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকবেনা আমরা পাহাড়ের দারিদ্রতাকে জাদুঘরে পাঠাবে উল্লেক করে তিনি বলেন, আমি জননেত্রী শেখ হাসিনার মেসেজ দিতে রামগড়ে এসেছি দলের মধ্যে কোন বিরোধ থাকবেনা ইউনিয়ন ও পৌরসভা নির্বাচনের বিরোধে ছাড় দেয়া হয়েছে কিন্তু আগামী দুই বছরে আর কোন ছাড় নেই। বিরোধ থাকলে কাউকে আগামীতে মনোনয়ন দেয়া হবেনা। মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় জেলার রামগড়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের এক গণসংবর্ধনা ও জনসভার অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য এসব কথা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নব নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও সরকারের সেতু ও পরিবহণ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক শাহ আলম মজুমদারের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়মীলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী দিপংকর তালুকদার, খাগড়াছড়ির সাংসদ ও জেলা আওয়মীলীগের সভাপতি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী, পার্বত্য জেলার সংরক্ষিত মহিলা সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল আলমসহ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি আরো বলেন, শেখ হাছিনা পার্বত্য চট্টগ্রামকে ভালবাসেন তাই জনগণ তাঁদের হৃদয়ে নাম লিখে রেখেছেন তাই তিনি এতো সাহসী বারবার ক্ষমতায় আসেন তিনি সকলকে উদ্দেশ্য করে বলেন পাথরে নয় হৃদয়ে নাম লিখতে চাই। তিনি ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে বিএনপির সমর্থনের সমালোচনা করে বলেন, বিএনপি ভারতের নরেন্দ্র মোদী ও যুক্তরাষ্ট্রের হিলারীর প্রতি আস্থাবান তাঁরা মনে করে বিদেশীরা বিএনপিকে ক্ষমতায় এনে দেবে কিন্তু আওয়ামীলীগ বিশ^াস করে আস্থা রাখে এদেশের জনগণের উপর এসময় তিনি বিএনপির ককলেট রাজনীতির মাধ্যমে মানুষ পুড়িয়ে মারার রাজনীতির সমালোচনা করেন বলেন আওয়ামীলীগ নতুনত্বের রাজনীতি করে। এসময় রামগড়কে জেলায় রুপান্তরের দাবীতে শ্লোগান দেয়া হয়ে মন্ত্রী বলেন রামগড়কেও আলোকৃত করা হবে। তিনি বলেন, শেখ হাছিনার নেতৃত্বে ২০২১ সালে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে বিশে^ উন্নত দেশে পরিণত করা হবে এ লক্ষকে সামনে রেখে জনগণের সমর্থন নিয়ে আগামী নির্বাচনে আওয়ামীলীগ আবারো ক্ষমতায় যাবে।

এরআগে প্রধান অতিথি হেলিকপ্টর যোগে রামগড়ে পৌছলে উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায় শাহআলম মজুমদারের নেতৃত্বে প্রধান অতিথিকে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবধনা এবং পৌর মেয়র মোহাম্মদ শাহজাহান কাজী রিপনের নেতৃত্বে সোনাইপুলে পৃথক পৃথক ভাবে সংবর্ধনা দেয়া হয়। অনুষ্ঠান শেষে মন্ত্রী রামগড়ের সোনাইপুলে নির্মানাধীন ব্রীজ পরিদর্শন ও তৎকালীন আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম সোলতান আহাম্মদের কবর জিয়ারত করেন। এসময় তিনি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে জবাবে বলেন, আগামী জানুয়ারীতে রামগড়ে স্থলবন্দর মৈত্রীসেতু নির্মান কাজ শুরু হবে। এসময় দলীয় নেতাকর্মীরা ছাড়াও খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামন, জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মজিদ আলী পিবিএম সেবা, বিভাগীয় কর্মকার্তাসহ সরকারী উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে প্রধান অতিথি খাগড়াছড়ি স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন বলে জানা গেছে।

এর আগে মন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে আওয়ামীলীগ একপক্ষ রামগড় বাজারে সংবর্ধণা মঞ্জ এলাকা ও অপর পক্ষ পৌরসভা ভবন কেন্দ্রিক অবস্থান নেয়। নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে ও সংবর্ধণা অংশ নেয়াকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই দুই দফায় দাওয়া-পাল্টা দাওয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় কয়েকটি সিএসজি ও একটি চাঁদের গাড়ীর গøাস ভাংচুরের ঘটনা ঘটে এতে ৫-৬ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত