টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বিপ্লবীর মহাপ্রয়াণ

fidelচট্টগ্রাম, ২৬ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: কিউবার বিপ্লবী নেতা এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট ফিদেল কাস্ত্রো আর নেই। ৯০ বছর বয়সে বিশ্বজুড়ে লাখো ভক্তকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন এই মহান নেতা। স্থানীয় সময় শুক্রবার রাতে হাভানায় মারা যান তিনি।

১৯২৬ সালের ১৩ আগস্ট কিউবার পূর্বাঞ্চলীয় বিরান জেলায় স্পেনীয় বংশোদ্ভূত এক অভিবাসী পরিবারে জন্মেছিলেন এই বিপ্লবী নেতা। পুরো নাম ফিদেল আলেজান্দ্রো কাস্ত্রো রুজ হলেও তিনি ফিদেল কাস্ত্রো বা শুধু কাস্ত্রো নামেই পরিচিত।

একটি জেসুইট বোর্ডিং স্কুল থেকে মাধ্যমিক শিক্ষা শেষ করেন ফিদেল কাস্ত্রো। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলায়ও ফিদেল ছিলেন তুখোড়। ১৯৪৪ সালে কিউবার সেরা অলরাউন্ডার স্কুল অ্যাথলেট পুরস্কার পান তিনি।

আইন বিষয়ে স্নাতক শেষ করার পরপরই হাভানায় একজন আইনজীবী হিসেবে পেশা জীবন শুরু করেন ফিদেল। দরিদ্র মক্কেলদের পক্ষে লড়ে অল্প সময়ের মধ্যেই সুনাম ও খ্যাতি অর্জন করেন তিনি। এরপরই সক্রিয় দলীয় রাজনীতিতে যোগ দেন তিনি।

তার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয় প্রেসিডেন্ট ফালজেন্সিও বাতিস্তা এবং কিউবার উপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক প্রভাবের বিরুদ্ধে জাতীয়তাবাদী সমালোচনা নিবন্ধ লিখে। তিনি এ ব্যাপারে আগ্রহী হয়ে ওঠেন এবং কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সমর্থ হন। ১৯৫৩ সালে মনকাডা ব্যারাকে একটি ব্যর্থ আক্রমণ চালান তিনি এবং তারপর কারারুদ্ধ হলেও পরে ছাড়া পান। এরপর তিনি বাতিস্তা সরকার উৎখাতে সংগঠিত হওয়ার জন্য মেক্সিকো যান। ফিরে এসে ১৯৫৬ সালের ডিসেম্বরে সরকার উৎখাতে নামেন।

১৯৬১ সালে কিউবা কমিউনিস্ট দলের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই দলের প্রধান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন ফিদেল কাস্ত্রো। হাভানা বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিষয়ে পড়ার সময় ফিদেল কাস্ত্রো রাজনৈতিক জীবন শুরু করার পর কিউবার রাজনীতিতে একজন বিখ্যাত ব্যক্তিতে পরিণত হন।

পরবর্তীকালে কাস্ত্রো কিউবা বিপ্লবের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন যা যুক্তরাষ্ট্রের মদদে চলা বাতিস্তার স্বৈরশাসনকে ক্ষমতাচ্যুত করে। এর কিছুদিন পরই কাস্ত্রো কিউবার প্রধানমন্ত্রী হন। কিউবা বিপ্লবের প্রধান নেতা ফিদেল কাস্ত্রো ১৯৫৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে ১৯৭৬ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ১৯৬৫ সালে তিনি কিউবা কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান হন এবং কিউবাকে একদলীয় সমজতান্ত্রিক দেশ হিসেবে রূপ দেন। ১৯৭৬ সালের ফেব্রুয়ারি থেকে ২০০৮ পর্যন্ত কিউবার মন্ত্রী পরিষদের প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি।

কিউবার সর্বোচ্চ সামরিক পদ কমান্ডার ইন চিফ পদেও আসীন হন ফিদেল কাস্ত্রো। ২০০৮ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে কিউবার প্রেসিডেন্ট পদ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিলে তার ভাই রাওল কাস্ত্রো ক্ষমতা গ্রহণ করেন। তার সমর্থকরা তাকে মনে প্রাণে কিউবার প্রতিষ্ঠাতা বলেই মানেন। প্রায় অর্ধ শতাব্দী ধরে এক দলীয় শাসন ব্যবস্থায় কিউবাকে নেতৃত্ব দিয়েছেন এই মহান ও বিপ্লবী নেতা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত