টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বেবী চৌধুরী ছিলেন নিষ্ঠাবান আদর্শ রাজনীতিকের প্রতীক: গণপূর্তমন্ত্রী

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

raozanচট্টগ্রাম, ২৫ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস)::  আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন এমপি বলেছেন ২০৪১ সালে এ দেশ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি উন্নত রাষ্ঠ্রে প্রতিষ্ঠিত হবে। এ লক্ষে আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মীকে কাজ করে যেতে হবে। ২০০১ সালের পর খালেদা সরকারের আমলে এ দেশ ধ্বংশের দ্বারপ্রান্তে গিয়ে দাড়িয়েছিল আর এখন এদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। তখনকার চেয়ে দেশ এখন অনেক সমৃদ্ধ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে আজকে পদ্মাসেতু দেশের টাকা দিয়েই নির্মিত হচ্ছে। তিনি গতকাল ২৫ নভেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ মরহুম শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বেবীর স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন এমপি আরো বলেন শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বেবী ছিলেন নিষ্ঠাবান আদর্শ রাজনীতিকের প্রতীক। আদর্শবাদী ও নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিক আজকের তরুন প্রজন্মের কাছে অনুকরণযোগ্য হতে পারে। রাউজানকে নিয়ে তিনি স্বপ্ন দেখতেন সেই স্বপ্ন বাস্তবায়িত করছেন রাউজানের সাংসদ ফজলে করিম এমপি। বেবী চৌধুরী যেভাবে সংগঠনকে ভালবেসে কাজ করেছেন তা সকল কর্মীদের অনুসরণ করা দরকার। তিনি যেভাবে দেশ ও দশের সেবা করে গেছেন তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে উপজেলা সদরস্থ একেএম ফজলুল কবির চৌধুরী অডিটোরিয়ামে এ স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠন সমূহের আয়োজনে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নূরুল আলম, রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একেএম এহেছানুল হায়দর চৌধুরী বাবুল, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল ওহাব। উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা বশির উদ্দিন খান ও আহসান হাবিব চৌধুরী হাসানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন উত্তর জেলা সভানেত্রী দিলুআরা ইউসুফ, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল উদ্দিন আহমেদ, মরহুম বেবী চৌধুরীর পুত্র সাইফুল ইসলাম চৌধুরী রানা, রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম হোসেন, রাউজান থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নূর মোহাম্মদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফৌজিয়া খানম মিনা, জাফর আহম্মদ, চেয়ারম্যান আলহাজ্ব দিদারুল আলম, মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান চৌধুরী, ভূপেষ বড়–য়া, লায়ন সাহাবুদ্দিন আরিফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্বাস উদ্দিন, আলহাজ নূরুল আবছার বাঁশি, সুকুমার বড়–য়া, সোরোয়ার্দী সিকদার, প্রিয়তোষ চৌধুরী, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, মো. রোকন উদ্দিন, তসলিম উদ্দিন চৌধুরীম, সৈয়দ আব্দুল জব্বার সোহেল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জমির উদ্দিন পারভেজ, কাউন্সিলর আলমগীর আলী, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, বাবুল মিয়া মেম্বার, এ্যাডভোকেট সমির দাশ গুপ্ত, কাউন্সিলর জানে আলম জনি, এ্যাডভোকেট দীপক কুমার চৌধুরী, কাউন্সিলর আজাদ হোসেন, কাউন্সিলর শওকত হোসেন, শামীমুল ইসলাম চৌধুরী শামু, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, লায়ন ম্যালকম চক্রবর্ত্তী, জাহাঙ্গীর আলম, মঈনুদ্দিন মোস্তাফা, তপন দে, সোহেল আরিফ চৌধুরী, প্রমূখ। স্মরণ সভার অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে পৃথক একটি অনুষ্ঠানেও বক্তব্য দেন গণর্পূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত