টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়েছেন দিয়াজের মা

rচট্টগ্রাম, ২৪  নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: ময়নাতদন্তে আসা আত্মহত্যার প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে আদালতে হত্যা মামলার পর ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর মা বলেছেন, এটি আত্মহত্যা নয়। আমার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সুষ্ঠু বিচারের জন্য আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

তিনি বলেন, আমি কখনো আমার ছেলের গায়েও হাত তুলিনি। অত্যন্ত লাজুক ছিল। সে সারা রাত জেগে পড়াশোনা করতো। ও আমার সম্পদ ছিল না, পুরো দেশের সম্পদ ছিল। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

কান্নাজড়িত কণ্ঠে এভাবেই বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ছেলে হত্যার বিচার চেয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক দিয়াজ ইরফানের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে নিহতের বড় বোন অ্যাডভোকেট জোবাইদা সরোয়ার বলেন, দিয়াজ ইরফান চৌধুরীর ব্যক্তিগত কোনো দুঃখ, হতাশা বা বিষণ্নতা ছিল না। রাজনৈতিক বিষয় ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তিগত বা পারিবারিক বিষয় তাকে কখনো আচ্ছন্ন করেনি।

তিনি বলেন, ‘মৃত্যুর আগের দিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) সুবর্ণজয়ন্তী উৎসবেও দিয়াজ তার বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে বেশ ফুরফুরে মেজাজে ছিল। তার আচার-আচরণ, মেলামেশা, কোনো কিছুতেই কোনো প্রকার বিষণ্নতার ছাপ ছিল না। এটি কোনোভাবেই আত্মহত্যা নয়, বরং নির্মম হত্যাকাণ্ড।’

‘প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করে’ নিহত ছাত্রলীগ নেতার পরিবারের এ সদস্য বলেন, প্রভাবশালীরা ময়নাতদন্তকে প্রভাবিত করেছে। সুরতহাল প্রতিবেদনে ছিল এক রকম, ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে রয়েছে অন্যরকম। আমরা আদালতে মামলা করেছি। এ মামলাও প্রভাবিত হতে পারে আশংকা প্রকাশ করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী, দিয়াজের আরেক বোন সাইদা সরোয়ার নিশা, ছোট ভাই মিরাজ ইরফান চৌধুরী ও ভগ্নিপতি মোহাম্মদ সরোয়ার আলমসহ পরিবারের সদস্যরা।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত