টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সব রোহিঙ্গাকে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

চট্টগ্রাম, ২৪ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: মিয়ানমার থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা সব রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ ফিরিয়ে দিচ্ছে না বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ এম মাহমুদ আলী। তিনি বলেছেন, ‘যারা আসছে তাদের সবাইকে ফিরিয়ে দেওয়াও সম্ভব হচ্ছে না। মানবিক কারণে বাংলাদেশে প্রবেশ করা কিছু কিছু রোহিঙ্গাদের চিকিৎসা ও খাবার দেয়া হচ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাঙ্গেরি সফর উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বিকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর সেনাবাহিনীর সাম্প্রতিক অভিযানের পর বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের পালিয়ে আসার ঘটনা বেড়েছে। রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ ঠেকাতে সরকার সীমান্তে পাহারা জোরদার করলেও রোহিঙ্গারা দল বেধে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে।

এই ঘটনায় বাংলাদেশে মিয়ানমারের দূতকে তলব করে প্রতিবাদ জানিয়েছে সরকার। কক্সবাজারে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর মধ্যে বৈঠকও হয়েছে।

৮০ দশক থেকেই মিয়ানমার থেকে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বাংলাদেশে পালিয়ে আসার ঘটনা ঘটছে। বাংলাদেশে দুটি শরণার্থী শিবিরে ৩০ হাজার তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গা বসবাস করলেও অনিবন্ধিত রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় পাঁচ লাখ বলে ধারণা করা হয়।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্ত দুর্গম হওয়ায় রোহিঙ্গাদের সম্পূর্ণভাবে বাংলাদেশে প্রবেশ ঠেকানো যাচ্ছে না।’

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘নতুন করে আরো কোনো রোহিঙ্গার নাম নিবন্ধন করা হবে না। তবে যারা বর্তমানে আছে তাদের একটি তালিকা করা হচ্ছে। যার কাজ চলমান রয়েছে।’

মাহমুদ আলী জানান, আগামী ২৮ থেকে ৩০ নভেম্বর হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্টে পানি সম্মেলনে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এটি হবে হাঙ্গেরিতে তার প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর। এ সফরে প্রধানমন্ত্রীর সফর সঙ্গী হিসেবে থাকবেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম।

সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা ছাড়াও বাংলাদেশের শীর্ষ ব্যবসায়ীদের একটি বাণিজ্য প্রতিনিধিদলও প্রধানমন্ত্রীর সফর সঙ্গী হবেন।

মন্ত্রী বলেন, এই সফরে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা, কৃষি ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার প্রসার নিয়েও কথা হবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ রপ্তানিবাজার ইউরোপীয় ইউনিয়ন এর সদস্য হওয়া সত্ত্বেও হাঙ্গেরির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যর পরিমাণ এখনও তেমন বাড়েনি। এই অবস্থায় বাংলাদেশের তৈরি পোশাকসহ অন্যান্য পণ্যের বাজার সম্প্রসারণ এই সফরের অন্যতম লক্ষ্য।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত