টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

হাটহাজারীতে কলেজের অধ্যক্ষকে মারধর : ২৪ ঘন্টার অল্টিমেটাম

নির্বাচনী পরীক্ষায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীর ফরম পূরণের অন্যায় আবদার না রাখায়

হাটহাজারী প্রতিনিধি 

hathazariচট্টগ্রাম, ১৬ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস)::  নির্বাচনী (এসএসসি) পরীক্ষায় অকৃতকার্য শিক্ষার্থীর ফরম পূরণের অন্যায় আবদার না রাখায় হাটহাজারী গালস্ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহম্মদকে প্রহৃত ও লাঞ্চিত করেছে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক কাজী মো. শাওন মাহমুদ তার সহযোগীরা। এ ঘটনায় অধ্যক্ষ বাদী হয়ে ওই ছাত্রলীগ নেতাসহ ২ জনকে সুনিদিষ্ট ও অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনকে বিবাধী করে মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

আজ বুধবার (১৬ নভেম্বর) দুপুর দেড়টায় উপজেলা সম্মুখস্থ চট্টগ্রাম-রাঙ্গামাটি মহাসড়কের পার্শ্বে কনক কমিউনিটি সেন্টারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ছাত্রলীগ নেতা শাওনের সহযোগী হিসেবে ঘটনাস্থলে ছিল হাটহাজারী পৌরসভার পশ্চিম দেওয়ান নগর এলাকার জামাল উদ্দিনের পুত্র মো. ইশতিহাক ও অজ্ঞাতনামা আরো ৪/৫ জন বলে অভিযোগ করে কলেজের অধ্যক্ষ আলী আহম্মদ।

এ ব্যাপারে অধ্যক্ষ এ প্রতিবেদককে আরো জানান, গত ১৪ নভেম্বর দুপুরে ছাত্রলীগ নেতা শাওন তার সহযোগীদের নিয়ে আমার অফিসে প্রবেশ করে এসএসসি পরীক্ষায় অকৃতকার্য এক শিক্ষার্থীর ফরম পূরণের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এ সময় আমি অপারগতা প্রকাশ করলে তখন তারা আমাকে গাল-মন্দ করে এবং দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদান করে। এরমধ্যে গতকাল বুধবার দুপুর দেড়টায় আমি কলেজ থেকে বাসযোগে গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার পথে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গাড়ির গতি রোধ করে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক কাজী মো. শাওন মাহমুদ তার সহযোগীরা আমাকে জোর পূর্বক নামিয়ে কিল-ঘুষি মেরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে। এক পর্যায়ে শাওন আমার প্যান্টে রক্ষিত ১ লক্ষ ৫৫ হাজার নগদ টাকা ও ১টি মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

ঘটনার সত্যতা জানতে অভিযুক্ত উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক কাজী মো. শাওন মাহমুদ এর মোবাইলে ফোন করে সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়নি। তবে ওই ঘটনার সাথে ছাত্রলীগের কোন নেতাকর্মী জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি আরিফুল ইসলাম রাসেল ও সাধারণ সম্পাদক মো. হাসান।

হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আফছানা বিলকিস এ প্রতিবেদককে জানান, এটি একটি ন্যাকারজনক ঘটনা। বিষয়টির ব্যাপারে পুলিশ প্রসাশনকে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নিদের্শ দিয়েছি।

এদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদে হাটহাজারী উপজেলা শিক্ষক সমিতি তাৎক্ষনিক হাটহাজারী গালস্ স্কুল এন্ড কলেজে একটি প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে। সমাবেশে উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবাদ সমাবেশে শিক্ষক সমাজের নেতৃবৃন্দরা এ ন্যাকারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে ২৪ ঘন্টার মধ্যে দোষী ব্যক্তি আটক করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত