টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

আওয়ামী লীগে মৌসুমি পাখির স্থান নেই: চট্টগ্রামে ওবায়দুল কাদের

unnamedচট্টগ্রাম, ১২ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: অনুপ্রবেশকারীদের দল ছেড়ে যাবার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বসন্তের কোকিল কারা কারা দলে অনুপ্রবেশ করেছেন, ‍আপনাদের বলছি- আওয়ামী লীগে বসন্তের কোকিল আর মৌসুমি পাখির কোন স্থান নেই। চলে যান, আমার মৌসুমি পাখির দরকার নেই। শেখ হাসিনার বসন্তের কোকিলের দরকার নেই। যখন দু:সময় আসবে তখন হাজার পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও বসন্তের কোকিলদের খুঁজে পাওয়া যাবে না।

শনিবার (১২ নভেম্বর) নগরীর লালদিঘি ময়দানে কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পাওয়া চট্টগ্রামের নেতাদের সংবর্ধনা উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মঞ্চে থাকা চট্টগ্রামের নেতাদের দাঁড়িয়ে ঐক্যবদ্ধ থাকার শপথও করিয়েছেন দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় শীর্ষ নেতা ওবায়দুল কাদের।তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, মঞ্চের দিকে তাকিয়ে দেখুন। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ, অভিন্ন। আপনারা ওখান থেকে টুকটাক এটা-সেটা করবেন, ওইদিন চলে গেছে। এটা আর করতে দেয়া হবেনা।

বিএনপি’র ভারত মিশন শেষ হয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমেরিকা মিশন নিয়ে অপেক্ষা করেছিলেন এতদিন সেটাও শেষ হয়েছে। আওয়ামীলীগের ক্ষমতার উৎস হলো জনগন উল্লেখ করে সেতু মন্ত্রী বলেন আওয়ামীলীগ নয় দেউলিয়া হয়েছে বিএনপিই। আন্দোলন নিয়ে টালবাহানা করছেন এবছর নয় তো ওবছর আসলে আন্দোলন হবে কোন বছর? তিনি বলেন, কেমনে আন্দোলন হবে মরাগাঙ্গে তো জোয়ার আসেনা। বিএনপি বিএনপি’র রাজনীতি এখন প্রেসরিলিজ নির্ভর হয়ে গেছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন যারা দলের নিয়ম মানবেনা তাদের দলে থাকার কোন অধিকার নেই। গুটি কয়েকজন যারা পরিবেশ নষ্ট করতে চান তাদের জন্য পুরা দল নষ্ট হতে পারেনা তাদেরকে বের করে দেয়া হবে। দলে যারা অনুপ্রবেশ করেছেন তাদেরকে ধরা হবে। বসন্তের কোকিদের শেখ হাসিনার কাছে স্থান নেই। হাছা কইলাম না মিছা কইলাম, হাছা কইছি? চট্টগ্রামের সবাই আজ এক মঞ্চে। আমরা অভিন্ন এবং এক।

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক মেয়র মহিউদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবর্ধনা সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, গৃহায়ন ও গনপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, সাবেক মন্ত্রী দিপু মণি, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাভেদ,কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ,চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন,সাবেক এমপি ইছহাক মিঞা,দক্ষিন জেলা সভাপতি মোসলেম উদ্দিন,উত্তর জেলা সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী,দক্ষিন জেলা সেক্রেটারী মফিজুর রহমান,উত্তর জেলা সেক্রেটারী এম এ ছালাম প্রমুখ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত