টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ষোলশহর সড়কে আবর্জনা, পথচারীদের দুর্ভোগ

এস এম ইব্রাহিম
প্রধান প্রতিবেদক, সিটিজি টাইমস ডটকম

dastbinচট্টগ্রাম, ০৯ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): চট্টগ্রাম মহানগরীর ষোলশহর সিডিএ অ্যাভিনিউর এশিয়ান আবাসিক এলাকার সম্মুখভাগের সড়কে একদিকে চলছে মুরাদপুর ফ্লাইওভারের জন্য গার্ডার নির্মাণের কাজ। সঙ্কুচিত রাস্তায় চলাচল করছে যানবাহন ও পথচারী।

এতে যানজটের পাশাপাশি সৃষ্ট হয়েছে জনদুর্ভোগ। তম্মধ্যে সড়কের অপর পাশে রাখা আবর্জনার ভাগাড়ে কাহিল এই এলাকার জনসাধারণ। প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ বাড়লেও দেখার যেন কেউই নেই।

এ ব্যাপারে জানার জন্য পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. মোবারক আলীর মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

সরেজমিনে সিডিএ অ্যাভিনিউর মুরাদপুর-বহদ্দারহাট সড়কের এশিয়ান আবাসিক এলাকার মুখে গিয়ে দেখা যায়, ফ্লাইওভারের জন্য গার্ডার নির্মাণের জন্য সড়কের প্রায় অর্ধেক আটকা পড়ে রয়েছে। সড়কের অবশিষ্ট অংশে ময়লা আর আবর্জনায় ভরপুর। ফলে ব্যস্ততম সড়কের এই অংশে এসে ধীরগতিতে চলছে যানবাহন। এর কারণে ক্ষণে ক্ষণে দেখা মিলছে যানজটের।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, সড়ক স¤প্রসারণের সময় ফুটপাতে পথচারীদের হাঁটার জায়গা ভেঙে ফেলা হয়। নতুন করে পথচারীদের জন্য কোনো হাঁটার জায়গা করা হয়নি। ফলে পথচারীদের যাতায়াত করতে হয়ে সড়কের ওপর দিয়েই।

এরমধ্যে সড়কের ওপর রাখা ময়লা-আবর্জনার গন্ধে চরমে পৌঁছেছে পথচারীদের দুর্ভোগ। নাক চেপে ধরে পার হতে গিয়েও আবর্জনার গন্ধে পুরো এলাকার জনসাধারণকে প্রতিদিন হতে হচ্ছে নাকাল। পথচারীরা সড়কে চলাচলের কারণে প্রায়শই ঘটছে ছোটখাট দুর্ঘটনা।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, সিটি করপোরেশনের নির্ধারিত সময়ে ময়লা না ফেলে অধিকাংশ মানুষ তা ফেলে দিনের বেলায়। ফলে আবজর্নার দুর্গন্ধের মাঝেই চলাচল করতে হয় মুরাদপুর-বহদ্দারহাট এলাকায় চলাচলকারী মানুষজনকে। রাতের বেলায় ময়লা-আবর্জনা সরিয়ে ফেলা হলেও দিনের বেলায় দেখা যায় আবর্জনার এই চিত্র।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর শৈবাল দাশ সুমন বলেন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজ সুন্দরভাবে করার জন্য আমরা ডোর-টু-ডোর ময়লা সংগ্রহে চলে যাচ্ছি। এক্ষেত্রে নগরবাসীর সহযোগিতা আমাদের প্রয়োজন।

তিনি বলেন, নগরকে আবর্জনামুক্ত করার জন্য নগরবাসীর মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচারণামূলক লিফলেট বিতরণ করা হচ্ছে। জনগণ সচেতন না হলে আমরা সফলতা অর্জন করতে পারবো না। আর এ এলাকায় আবর্জনা পড়ে থাকার বিষয়টি আমরা দেখছি। আবর্জনা যাতে আর পড়ে না থাকে এ ব্যাপারে আমরা দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত