টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে পাহাড় ধসের আশঙ্কা

প্রধান প্রতিবেদক
সিটিজি টাইমস ডটকম 

চট্টগ্রাম, ০৬ অক্টোবর(সিটিজি টাইমস):  নাডার প্রভাবে বৃষ্টি হচ্ছে বৃহস্পতিবার থেকেই। শুক্র, শনিবারও দিনভর চট্টগ্রাম নগরে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হয়েছে। থেমে থেমে আজ রোববারও চলছে বৃষ্টি। চারদিনের এই বৃষ্টিপাতে নগরীতে পাহাড়ধসের আশঙ্কা করছে আবহাওয়া দপ্তর।

পতেঙ্গা আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ফরিদ উদ্দিন জানান, টানা চার দিনের বৃষ্টিতে পাহাড়ি এলাকার মাটি ফসকে উঠতে পারে। যে কোন মুহুর্তে তা ধসে পড়ে বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটাতে পারে।

আবহাওয়া অফিসের এই সতর্কবার্তায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন নগরীর লালখান বাজার, খুলশী ও বায়েজিদ এলাকায় পাহাড় ও পাহাড়ের পাদদেশে গড়ে ওঠা ঝুঁকিপূর্ণ বসতি থেকে বাসিন্দাদের সরে নিতে তৎপর হয়ে উঠেছে।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিজাম উদ্দিন জানান, লালখান বাজার এলাকার পাহাড়ের অতি ঝুঁকিপূর্ণ বসতিতে থাকা ১৫টি পরিবার সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আরও অনেক পরিবারকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

বায়েজীদ এলাকার বাসিন্দা জহিরুল ইসলাম জানান, চারদিনের বৃষ্টিতে বায়েজীদ এলাকার পাহাড়ের মাটিগুলো স্যাঁতস্যাঁতে হয়ে উঠেছে। দেখলে বুঝা যায় মাটি যেন ধসে পড়ার অপেক্ষায় রয়েছে। এই এলাকার ২০টিরও বেশি পরিবারকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়েছে বায়েজীদ থানার পুলিশ।

পতেঙ্গা আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকেল ৩টা থেকে আজ রোববার বেলা তিনটা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টায় চট্টগ্রামে ৭৬ মিলিমিটার এবং বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার পর্যন্ত ২২৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকের্ড হয়েছে। আজ রাতেও মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভবনা রয়েছে।

পতেঙ্গা আবহাওয়া দপ্তরের আবহাওয়াবিদ শাহীনুল ইসলাম জানান, চারদিনের বৃষ্টিপাতের ফলে নগরী কোথাও কোথাও জলজটে মানুষের দুর্ভোগ বেড়েছে। তবে সবচেয়ে ঝুকিঁতে রয়েছে নগরীর বিভিন্ন পাহাড়ি এলাকায় বসবাসকারী পরিবারগুলো।

তিনি বলেন, পাহাড়ের মাটি এমনিতেই বালি। বৃষ্টির পানিতে এ মাটি ফসকে যেতে পারে। এ পর্যন্ত পাহাড় ধসের কোন ঘটনা না ঘটলেও যে কোন সময় তা ভয়াবহ বিপর্যয় নিয়ে আসতে পারে। তাই পাহাড় বা পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারী মানুষগুলোকে নিরাপদে সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত