টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

লামা-চকরিয়া সড়কে ১দিনে ৪ বার ডাকাতি, আহত ৫

এস.এম ইসমাইল হাসান
বান্দরবান প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ৫ অক্টোবর(সিটিজি টাইমস):  বান্দরবানের লামা-চকরিয়া সড়কের কুমারী এলাকায় শনিবার একদিনেই চারবার ডাকাতির চেষ্টা চালিয়েছে সক্রিয় ডাকাত দল এসময় আহত হয়েছেন শিশুসহ গুলিবিদ্ধ পাঁচ যাত্রী।

এ ঘটনায় আহতরা হলেন মোঃ আইয়ুব(৪০) নুরুল কাদের(৩৫) ও এহছান হাবিব (১০)।আহত ২ জনকে চকরিয়া ও ১ জনকে লামা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় যাত্রীদের কাছ থেকে নগদ টাকা, মোবাইল ও জিনিসপত্র লুট করে।

বিকাল সাড়ে ৩ টায় ডাকাতের হামলার স্বীকার মোটর সাইকেল ড্রাইভার মোঃ জাকের হোসেন( ৩২) বলেন, আমরা চকরিয়া হতে লামা ফেরার পথে লামা-চকরিয়া সড়কের কুমারী সাড়ে পাঁচ মাইল নামক স্থানে ১০/১৫ জনের একটি ডাকাত দল আমাদের গাড়ীর গতিরোধ করে লুট করতে থাকে। সে সময় আরেকটি জীপ গাড়িও তারা লুট করে। আমি ও আরো কয়েকজন দৌড়ে পালিয়ে যেতে থাকলে ডাকাতরা গাধা বন্ধুক থেকে এলোপাতারি গুলি ছৌড়ে। এসময় লামার ফাঁসিয়াখালীর ঠান্ডা ঝিরি এলাকার এহছান হাবিব (১০) নামে এক শিশু গুলিবিদ্ধ হয়।

সরজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানা যায়, শনিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে (চট্টমেট্রো ক ০২-০৬২৫) ল্যান্ডক্রুজার গাড়িটি লামা থেকে চকরিয়া যাওয়ার পথে একই স্থানে ডাকাতের কবলে পড়ে। ডাকাতরা মারধর ও লুট করার সময় কয়েকজন যাত্রী পালিয়ে যেতে চাইলে ডাকাতরা গুলি করলে ২জন গুলিবিদ্ধ হয়। এছাড়া ভোর রাত ৪টায় লামা গামী একটি বিয়ের বাস গাড়িকে উক্ত স্থানে রাস্তায় গাছ ফেলে গতিরোধ করলে বাসটি গাছের উপর দিয়ে জোরে চালিয়ে চলে আসতে সক্ষম হয়। তারও কিছুক্ষণ আগে লামা পৌরসভার চেয়ারম্যান পাড়া এলাকার নুরনবী নামে একজনকে মোটর সাইকেল সহ ডাকাতরা অপহরণ করে ১০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে বলে জানায় তার বাবা আবুল কাসেম।লামা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল হোসেন ও সেনাবহিনীর ২টি টহল দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। রাতে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর পৃথক অভিযান পরিচালনা করা হবে বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে লামা পুলিশের এএসপি সার্কেল আল-মাহামুদ হাসান বলেন ঘটনা স্থলে পুলিশ পরির্দশ করেছেন এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত