টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বদি সমর্থকদের সড়ক অবরোধ

আমান উল্লাহ আমান
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

teknaচট্টগ্রাম,  ০২ নভেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: উখিয়া-টেকনাফের সাংসদ আবদুর রহমান বদি এমপিকে দুদুকের মামলায় তিন বছর সাজা ও ১০ লাখ টাকা জরিমানা দেওয়ার প্রতিবাদে টেকনাফে তাৎক্ষনিক বিক্ষোভ মিছিল ও সড়কে ব্যারিকেট সৃষ্টি করেছে নেতা-কর্মী এবং সমর্থকরা।

সবর্ত্রই ‘গরীবের বন্ধু এমপি বদির মুক্তি চাই, টেকনাফে শান্তি চাই, গরীবের পেটে ভাত চাই’ শ্লোগানে মুখরিত ছিল।

২ নভেম্বর বুধবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি জহির আহমদ এমএ ও পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলম বাহাদুরের নেতৃত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয় থেকে শুরু হয়েশান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলটি পৌরসভার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে ফের কার্যালয় সম্মূখে মিলিত হয়। এতে পৌর এলাকার ওয়ার্ড পর্যায়ের সর্বস্তরের নেতা কর্মী ও সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় নেতৃবৃন্দরা বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশের ঘোষনা করেছে। এতে টেকনাফের সর্বস্তরের জনগনকে উপস্থিত থাকার আহবান জানানো হয়।

এসময় বক্তব্য রাখেন টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি জহির হোসেন এমএ, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোহাম্মদ আলম বাহাদুরসহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠনের সর্বস্তরের নেতৃবৃন্ধ।

পরে বিকাল ৩ টার দিকে এমপি বদির সমর্থকরা উপজেলা আওয়ামীলীগের পাশে প্রধান সড়কে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে যান বাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটায়। এসময় দূদিক থেকে আসা যান বাহন আটকা পড়ে যাত্রীরা ভোগান্তির শিকার হয়। অবশ্যই কিছুসময় পর অবরোধ তুলে নেয় এমপি বদির সমর্থকরা।

এদিকে এমপি বদিকে সাজার প্রতিবাদে আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে।

পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ আলম বলেন, আমরা যথাযথ ন্যায় বিচার পাইনি। এব্যাপারে উচ্চ পদস্থ আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে কর্মসূচী দেয়া হবে।

পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি জাবেদ ইকবাল চৌধুরী বলেন, বর্তমান সরকার আইনের শাসনে বিশ্বাসী, এরায়ে সরকার যে নিরপেক্ষ তা প্রমানিত হয়েছে। পাশাপাশি একজন সরকার দলীয় সাংসদ হিসেবে বিষয়টি দলীয় ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করেছে।

টেকনাফ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ অধ্যাপক মোঃ আলী বলেন, দোষ করেছে শাস্তি হয়েছে। তবে জনগনের প্রত্যাশা অনুযায়ী শাস্তি হয়নি। প্রত্যাশার চেয়ে তিন বছর সাজা অতি কম।

শাস্তি আরো বেশী হলে সরকারের ভাবমূর্তি আরো উজ্জল হতো। সূতরাং এ রায়ে জনগন অসন্তোষ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত