টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

টেকনাফে গৃহবধুকে জবাই করে হত্যা: স্বামী আটক

আমান উল্লাহ আমান
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ২৯  অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): টেকনাফে দুই সন্তানের জননী রোকেয়াকে জবাই করে হত্যা করেছে স্বামী। সে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়ার বদিউল আলমের কন্যা রোকেয়া আক্তার (২২)। এঘটনায় নিহতের স্বামী ঘাতক মোঃ রুবেলকে পালানোর সময় আটক করেছে পুলিশ। ঘাতক স্বামী দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার কোশালডেঙ্গি গ্রামের আবদুল গফুরের ছেলে। পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে মনে করছেন পুলিশ।

২৯ অক্টোবর শনিবার বেলা ১২ টার দিকে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের রাজারছড়া গ্রামে এ নৃশংস ঘটনাটি ঘটে। নিহত রোকেয়ার মাতা সুরুজ্জামান বলেন, নিহত মেয়ের বড় সন্তান সিফাত (৩) কে নিয়ে পার্শ্বের বাড়ীতে যায়। এ সুযোগে স্বামী দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে স্ত্রী রোকেয়াকে। এ সময় ওই কক্ষে সদ্য জন্ম নেয়া কন্যা সন্তানদে দোলনাতে ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলো। এ দিকে নানী শিশু সিফাতকে মায়ের কাছে দিতে এসে দেখতে মেয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। এ সময় স্বামী রুবেল দৌড়ে পালিয়ে যায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গৃহবধূ রোকেয়া আকতারকে গলায় জবাই করে মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। এ ছাড়া হাত থেকে একটি কব্জি বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন জায়গাতে রয়েছে দায়ের কুপের একাধিক ক্ষত চিহ্ন। এদিকে খবর পেয়ে টেকনাফ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত ) শেখ আশরাফুজ্জামান ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরী করে এবং মৃতদেহ উদ্ধার করে।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মো. আবদুল মজিদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ঘাতক স্বামী মো: রুবেলকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য যে, গত ২ বছর পূর্বে নিহত রোকেয়ার সাথে মোঃ রুবেলের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে একমাসের শিশু কন্যা ও এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার শাহপরীরদ্বীপের হাজী পাড়ায় তাহেরা বেগম নামে অপর এক গৃহবধুর রহস্যজনকভাবে খুন হয়েছে এবং গত মাসে পৌরসভা এলাকার পুরান পল্লান পাড়া এলাকার ভাড়া বাসায় স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে স্বামী।

মতামত