টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

যুক্তরাষ্ট্রকে পুতিনের হুঁশিয়ারি: করুণ পরিণতি ভোগ করতে হবে

worldচট্টগ্রাম, ২৫ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):  হিলারি ক্লিনটন ও যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, রাশিয়ার সমালোচনা বন্ধ করুন না হলে করুণ পরিণতি ভোট করতে হবে। সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলাকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার মধ্যে যখন উত্তেজনা সব সময়ের মধ্যে তুঙ্গে তখন পুতিন একরকম হুমকিই দিয়ে দিলেন যুক্তরাষ্ট্রকে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন এক্সপ্রেস।

রাশিয়ায় একটি সংবাদ সম্মেলনে দেয়া তার এই হুমকি সম্বলিত একটি ভিডিও ক্লিপ প্রচার করা হয়েছে। তাতে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। বলেছেন, দেশের সমস্যা থেকে ভোটারদের দৃষ্টি সরাতে রাশিয়া ও ইরানের দিকে মনোযোগ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এর মধ্য দিয়ে তারা শত্রু সৃষ্টি করছে। এটা করে এ দুটি দেশের বিরুদ্ধে তারা মার্কিনিদের ঐক্যবদ্ধ করছে। রাশিয়া-আমেরিকার মধ্যকার সম্পর্ককে বিপদগ্রস্ত করে দেশের ভিতরে বড় অর্জনের চেষ্টা করা হচ্ছে। আমি মনে করি এটা ক্ষতিকর। এর উল্টো ফল আছে।

পুতিন আরও ুবলেন, এ বিষয়টি আর মজা করার মতো বিষয় নয়। যদি কেউ সংঘাত চায় তা আমাদের কাম্য নয়। কিন্তু এর অর্থ হলো সমস্যা সৃষ্টি করা। যখন বিভিন্ন দেশের সমাজ বিজ্ঞানী, রাষ্ট্রবিজ্ঞানী তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আশঙ্কা করছেন তখন পুতিন এমন বক্তব্য রাখছেন। তার এই ভিডিও ক্লিপটি এরই মধ্যে উপভোগ করেছেন কমপক্ষে ১৩ লাখ মানুষ। এতে তিনি হিলারি ক্লিনটনের তীব্র সমালোচনা করেন। বলেছেন, রাশিয়ার বিরুদ্ধে হিলারি অত্যন্ত আগ্রাসী অবস্থান নিয়েছেন।

অন্যদিকে ডনাল্ড ট্রাম্প (আমাদের সঙ্গে) সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছেন। বিশেষ করে তা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক লড়াইয়ের সময়ে। স্বাভাবিকভাবেই যারা আমাদের সঙ্গে সহযোগিতা করতে চায় তাদেরকে স্বাগত জানাই আমরা। একই সঙ্গে এ ধারণাটি ভুল যে, আমরা সব সময় অন্যের সঙ্গে সংঘাত বাধাতে চাই। একে অন্যের মধ্যে বিদ্যমান হুমকি বাড়াতে চাই। সারাবিশ্বে সমস্যা সৃষ্টি করতে চাই।

পুতিন বলেন, হিলারি প্রেসিডেন্ট হলে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যে হুমকি দিয়েছেন তা কি অব্যাহত রাখবেন? না কি তিনি আমাদের বিরুদ্ধে তার অবস্থান সংশোধন করবেন? উল্লেখ্য, হিলারি ক্লিনটন সহ ডেমোক্রেটিক শিবির এবার নির্বাচনে ডেমোক্রেটিকদের বিরুদ্ধে গোয়েন্দাবৃক্তির অভিযোগে রাশিয়াকে অভিযুক্ত করেছে। তৃতীয় ও সর্বশেষ প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কে হিলারি ক্লিনটন বলেছেন, আমেরিকার বিরুদ্ধে গুপ্তচরবৃত্তিতে নিয়োজিত রাশিয়া সরকার।

তারা আমেরিকানদের ওয়েবসাইট হ্যাক করেছেন, বেসরকারি ব্যক্তিদের একাউন্ট হ্যাক করেছে, প্রতিষ্ঠানের একাউন্ট হ্যাক করেছে। তারপর তারা হ্যাক করা তথ্য তুলে দিয়েছে উইকিলিকসের হাতে। সুস্পষ্টভাবে এ বিষয়টি করা হয়েছে রাশিয়া সরকারের পক্ষ থেকে, বিশেষ করে পুতিন নিজে করেছেন। মার্কিন ১৭টি গোয়েন্দা সংস্থা এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

তারা বলেছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রভাব খাটানোর জন্য রাশিয়া এসব করছে। জবাবে ডনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, আমি পুতিনকে চিনি না। তিনি আমার সম্পর্কে ভাল ভাল কথা বলেছেন। যদি আমরা যদি একসঙ্গে চলি তাহলে তা ভাল হবে। যদি রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র একসঙ্গে চলে তাহলে আইসিসের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে পারবো আমরা। সেটা ভাল বিষয় হবে।

ট্রাম্প আরও বলেন, হিলারির প্রতি পুতিনের কোনোই সম্মান নেই। এর জবাব দিয়েছেন হিলারি। তিনি ট্রাম্পকে পুতিনের পাপেট বা হাতের খেলনা বানাতে চান বলেও মন্তব্য করেন। বলেন, ট্রাম্পকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বানিয়ে এমন খেলা খেলতে চান পুতিন।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ওই ভিডিওতে পুতিন যেভাবে ট্রাম্পের প্রশংসা করেছেন, হিলারির সমালোচনা করেছেন তাতে স্পষ্টভাবেই বোঝা যায় তার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্ক ভাল যাচ্ছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত