টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিস: প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ হলেও বাড়েনি জনবল ও সক্ষমতা

শহীদুল ইসলাম বাবর
বিশেষ প্রতিনিধি, সিটিজি টাইমস

satkaniaচট্টগ্রাম, ১৮ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): সাতকানিয়ার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনটি বর্তমান সরকার প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ করলেও বাড়েনি জনবল ও সক্ষমতা। ফলে শুধুমাত্র নামেই প্রথম শ্রনীতে পরিণত হয়েছে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটি। তবে যে কোন দূর্ঘটনায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে উপস্থিত হয়ে দুর্ঘটনায় ক্ষতির পরিমাণ কমাতে সচেষ্ট কর্মকর্তারা। সদ্য যোগদানকৃত সিনিয়র স্টেশন অফিসার পূর্ণ চন্দ্র মুৎসুদ্দীর সাথে আলাপকালে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, ২০০৬ সালের ৬ অক্টোবর ষ্টেশনটি যাত্রা শুরু করে। ঐ সময় ফলক উম্মোচনের মাধ্যমে এ স্টেশনটির উদ্বোধন করেন তৎকালিন জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ শাহজাহান চৌধুরী। শুরুর পর্যায়ে স্টেশনটি ছিল ২য় শ্রেনী। সেই হিসেবে গাড়ি, সরঞ্জাম ও জনবল দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু চলতি বছরের জুলাই মাসে প্রয়োজন অনুসারে এটিকে প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ করেন। প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ হওয়ার ফলে এ ষ্টেশনে ১টি ৪হাজার ৪০০ লিটার ধারণ ক্ষমতার সম্পন্ন ওয়াটার টেন্ডার, ১টি ২হাজার ২০০ লিটার ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন মিনি ওয়ারটার টেন্ডার, ১টি সেকেন্ড কল টানআউট, ১টি রেসকিউ টানআউট ১টি এম্ব্যুলেন্স,২২ জন ফায়ারম্যান,৪ জন ড্রাইভার, ৩ জন লিডার, ১ জন স্টেশন অফিসার ও ১জন সিনিয়র স্টেশন অফিসার থাকার কথা।

কিন্তু বর্তমানে ১ জন সিনিয়র স্টেশন অফিসার, ১ জন স্টেশন অফিসার, ৩ জন লিডার থাকলেও ফায়ারম্যান আছে মাত্র ১২ জন। যাহা প্রয়োজনের তুলনায় ১০জন কম, খালি রয়েছে ড্রাইভারের ১টি পোষ্ট, আর ঘাটতি রয়েছে রেসকিউ টানআউট ও মিনি ওয়াটার টেন্ডার।

এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, ফায়ার স্টেশনটি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের সন্নিকটে স্থাপিত হওয়ায় যে কোন দুর্ঘটনায় দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারে। তাছাড়া চন্দনাইশ,সাতকানিয়া ও লোহাগাড়া উপজেলা দিয়ে প্রাবাহিত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে যে কোন দূর্ঘটনা ঘটলে ডাক পড়ে ফায়ার সার্ভিসের। ফলে বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলা চলে এ স্টেশনটিকে।

সিনিয়র স্টেশন অফিসার পূর্ন চন্দ্র মুৎসুদ্দি সিটিজি টাইমসকে বলেন, স্টেশনটি প্রথম শ্রেনীতে উত্তীর্ণ হওয়ার পর সিনিয়র স্টেশন অফিসার হিসেবে আমারই প্রথম পোষ্টিং। প্রথম শ্রেনীর ষ্টেশন হিসেবে যে সকল সুবিদা থাকার কথা এতে সংকট রয়েছে। আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট এসব সমস্যার কথা লিখিত ভাবে জানাবো। আশা করি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সমস্যা সমূহের সামাধান হয়ে যাবে। আর এতে করে প্রথম শ্রেনীর স্টেশন হিসেবে পরিপূর্ণতা লাভ করবে সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এমনটাই প্রত্যাশা সবার।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত