টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বোয়ালখালীতে বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সন্তানের বাবার স্কুলছাত্রীকে বিয়ের চেষ্টা

চট্টগ্রাম, ১৭ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: বাসায় বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছেলে মেয়ে রেখে এক স্কুলছাত্রীকে বিয়ে করতে উদ্যত চট্টগ্রামের পঞ্চাশোর্ধ্ব একব্যক্তিকে স্ত্রী’র অভিযোগের ভিত্তিতে বাল্য বিয়ে ঠেকালেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার। এতে রক্ষা পেলো চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলা খরণদ্বীপ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ঐ ছাত্রীর শিক্ষা জীবন।

সোমাবার বিকালে চেলার বোয়ালখালীতে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানাগেছে রাউজান উপজেলার কচুখাইন গ্রামের মৃত ইউনুচর ছেলে মো. রফিক বয়স (৫৫) বর সেজে বোয়ালখালী উপজেলার খরণদ্বীপ ইউনিয়নের বাদশা মিয়ার ১৪ বছরের কন্যা শিক্ষার্থীকে বিয়ে করতে যান। এ সংবাদ পেয়ে রফিকের স্ত্রী ইয়াসমিন আকতার (৪০) তার স্বামীর বিরুদ্ধে বাল্য বিয়ের অভিযোগ তুলে তা রোধ করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাছে লিখিত আবেদন জানান।

এ আবেদনের প্রেক্ষিতে বর মো. রফিক ও ১৪ বছরের কনের পিতা বাদশা মিয়া ও সৎমা রোজী আকতারকে সোমবার বোয়ালখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কার্যালয়ে ডাকা হয়। দুপুরে নির্বাহীর কার্যালয়ে উপস্থিত হলে কনের সৎ মা রোজী আকতার ও বাবা বাদশা মিয়াকে বাল্য বিবাহ নিরোধ আইন ১৯২৯ এর ৬ ধারায় ১হাজার টাকা করে জরিমানা ও এছাড়া বর মো. রফিকে একই আইনের ৪ধারায় ১হাজার টাকা জরিমানা করে করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এছাড়া কনের পিতা ও সৎমায়ের কাছ থেকে ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে বিয়ে না দেয়ার শর্তে মুচলেকা নেয় আদালত। উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মাহবুবুল আলম এ আদালত পরিচালনা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী মাহবুবুল আলম জানান, রফিকের স্ত্রী’র অভিযোগে ভিত্তিতে তাদের বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

মো. রফিকের স্ত্রী ইয়াসমিন আকতার (৪০) জানান, ১৯৯৫ সালে পহেলা জুন তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের ২১ বছরের সংসারে তিন সন্তানে জন্ম হয়। বড় ছেলে ইয়াসিন আরফাত (১৯) মালেশিয়ার হেল্প ইউনির্ভাসিটিতে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশুনা করছে। দ্বিতীয় কন্যা সাদিয়া আরাফাত (১৭) ইসলামিক ইউনির্ভাসিটি অব চিটাগাং ইংরেজী ১ম বর্ষে অধ্যয়নরত। তৃতীয় কন্যা সামিনা আরাফাত (১২) নগরীর সানমুন স্কুল এন্ড কলেজের ৭ম শ্রেণিতে পড়াশুনা করছে।

মো. রফিক কাতার প্রবাসী ছিলেন। এ অবস্থায় রফিক গ্রামের বাড়িতে প্রচুর অর্থবিত্ত ও সম্পত্তি গড়ে তোলেন। এছাড়া চট্টগ্রাম নগরীর কাপ্তাই রাস্তার মাথায় রফিক ম্যানসন নামের দুইটি ভবন রয়েছে বলে জানান ইয়াসমিন।

তবে রফিক ও স্ত্রী ইয়াসমিনের সর্ম্পকের মধ্যে অনেকটা ভাটা পড়েছে দাবি করে ইয়াসমিন জানায়, নগরীর ২নং গেইট নাছিরাবাদ এলাকায় মেয়েদের নিয়ে ভাড়াবাসায় বসবাস করছেন। রফিক কোনো খোঁজখবর নিচ্ছেন না বলেও জানান তিনি।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত