টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ছয় দিন ধরে টেকনাফ স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

আমান উল্লাহ আমান
টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৪  অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস)::মিয়ানমারের মংন্ডুতে বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) ক্যাম্পে সন্ত্রাসী হামলার প্রেক্ষিতে গত ৬ দিন ধরে টেকনাফ স্থল বন্দরের সকল আমদানি-রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। ফলে স্থবির হয়ে পড়েছে বন্দরের সকল কার্যক্রম। এতে এ মাসের রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরনে ব্যর্থ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া নাফ নদীতে নৌ চলাচল, টেকনাফ-মংডু ট্রানজিট যাতায়াত, স্থল বন্দর ইমিগ্রেশন বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশ সীমান্তে বিজিবির কড়া নিরাপত্তাসহ বাড়ানো হয়েছে টহল। সর্বদা সতর্কাবস্থায় রয়েছে জওয়ানরা। যাতে সেদেশের কোন সন্ত্রাসী বাংলাদেশে ঢুকতে না পারে। ইতিমধ্যে সেদেশের কর্তৃপক্ষ বিজিবিকে দোভাষীর মাধ্যমে বিষয়টি অবহিত করেছে।

এদিকে মংডুর বিভিন্ন বিজিপি ক্যাম্পে হামলার প্রেক্ষিতে মিয়ানমার থেকে বর্ডার পাস নিয়ে আসা প্রায় ২শত নাগরিক আটকা পড়ে যায় বাংলাদেশে। ১৩ অক্টোবর বাংলাদেশ অভিবাসন-ট্রানজিট কর্মকর্তাদের সহযোগীতায় আটকা পড়া ১২৭ জন নারী-পুরুষ মিয়ানমার নাগরিকে স্বদেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। টেকনাফ স্থলবন্দর ইমিগ্রেশন জেটি দিয়ে তাদেরকে ফেরত পাঠানো হয়। আরো প্রায় অর্ধশতাধিক মিয়ানমার নাগরিক আটকা রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে। এছাড়া মিয়ানমারে আটকা পড়া ২০ বাংলাদেশীকে বিশেষ ব্যবস্থায় ১০ অক্টোবর ফিরিয়ে আনা হয়।

টেকনাফ স্থল বন্দরের ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বে থাকা অভিবাসন-ট্রানজিট কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন আরো জানান, গত ৬ দিন ধরে পাশ^বর্তী দেশ মিয়ানমারে সংঘাত সৃষ্টি, বৈরী আবহাওয়ার কারনে বর্ডার পাস নিয়ে আসা ২শত নাগরিকে ফেরত পাঠানো সম্ভব হয়নি। অবশেষে আবহাওয়া পরিস্থিতি ভাল হওয়ায় এবং মিয়ানমারের ইমিগ্রেশন কর্মকর্তাদের যোগাযোগ করে আটকা পড়া ২শত মিয়ানমার নাগরিকের মধ্যে ১২৭ জন মিয়ানমার নাগরিকে স্ব-দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে পুরুষ ৭৫ জন, মহিলা ৫২ জন। বাকিদেরকেও এইভাবে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

টেকনাফ স্থল বন্দর কাস্টমস কর্মকর্তা ও বন্দর ব্যবসায়ীদের সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, মিয়ানমারের সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে গত ৫ দিন ধরে মিয়ানমার থেকে কোন পন্যবাহী ট্রলার টেকনাফ স্থলবন্দরে আসেনি এবং টেকনাফ থেকে কোন পন্যবাহী ট্রলার মিয়ানমারের উদ্দেশ্যে যেতে পারেনি এতে বন্ধ রয়েছে আমদানি ও রপ্তানি কার্যক্রম।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত