টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মিরসরাইয়ে ভিডিও কনফারেন্সে আশ্রয় কেন্দ্র উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি 

1চট্টগ্রাম, ১৩  অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): : মিরসরাইয়ের খেয়ারহাট নুরিয়া সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদরাসা চত্ত¡রে ঘুর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (১৩ অক্টোবর) সকালে আর্ন্তজাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষ্যে সারা দেশে ১০০টি ঘুর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র ও ৫০টি বন্যা নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র (সাইক্লোন সেন্টার) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন থেকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। ঘূর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রগুলো নির্মাণ করেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

মিরসরাইয়ে খেয়ারহাট নুরিয়া সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদরাসা চত্ত¡রে ঘুর্ণিঝড় আশ্রয় কেন্দ্র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মাদরাসার পরিচালনা কমিটির সদস্য ডা. আনোয়ার হোসেন ভূইয়ার সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ ছালেহ আহমেদ ভূইয়া। এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান (ভারপ্রাপ্ত) ইয়াছমিন আক্তার কাকলী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জিয়া আহমেদ সুমন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আতাউর রহমান, সাহেরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হায়দার চৌধুরী, সাহেরখালী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মাহফুযুল করিম, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার মহিউদ্দিন, ইউপি সদস্য আব্দুর রহমান সহ প্রমুখ।

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বজ্রপাত থেকে বাঁচতে বেশি করে তাল গাছ লাগানো প্রয়োজন। তাল গাছের একটা গুণ আছে। বজ্রপাত হলেই কিন্তু সেটা এসে তালগাছে পড়ে। তালগাছ বিদ্যুৎ টেনে নেয়। কিন্তু আমাদের দেশে আস্তে-আস্তে যেন তাল গাছ হারিয়ে যাচ্ছে। আমার মনে হয় এই তালগাছ আবার লাগানো শুরু করা উচিত। স¤প্রাতিক সময়ে বজ্রপাতে দেশের বিভিন্ন স্থানে মানুষের মৃত্যু ঘটনার প্রসঙ্গ টেনে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ইদানিং বজ্রপাত খুব বেশি দেখা যাচ্ছে। এক সময়, বাংলাদেশের প্রতিটি রাস্তায়, বাড়ির কোণায় কিংবা মসজিদের পাশে সব জায়গায় তালগাছ দেখা যেতো। ইদানিং তালগাছ নাই। তালগাছ কেউ লাগায় না। আগে প্রত্যেক বাড়ির সঙ্গে তালগাছ থাকতো বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ভবনে বজ্র নিরোধক ধাতব দ্রুত লাগানোর নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘স্কুল, কলেজ ও সাইক্লোন সেন্টারের যেখানেই ভবন নির্মাণ করা হবে, সেখানেই আর্থিং ব্যবস্থা রাখতে হবে। তাহলে বজ্রপাত হলে, তা ধাতব রু বা আর্থিং ব্যবস্থ্যার মধ্যদিয়ে বিদ্যুৎ মাটিতে চলে যাবে। এই আর্থিং ব্যবস্থাও আজকাল মনোযোগ দিয়ে করা হয় না।’

তিনি আরো বলেন, ‘প্রতি উপজেলায় আমরা ফায়ার সার্ভিস করে দিয়েছি। প্রতিটি এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নতর করার জন্য আমরা পায়ে হাঁটার জন্য ছোট ছোট ব্রিজও করে দিচ্ছি বলে জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

ঝড়, বন্যা, জলোচ্ছ¡াসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষা পেতে উপকূলীয় এলাকাসহ গোটা দেশকে সবুজ বেস্টনিতে ঘিরে ফেলার আহবান জানান এই আওয়ামী লীগের সভাপতি।

 

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত