টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ইংল্যান্ড সিরিজের প্রথম ম্যাচ আজ

চট্টগ্রাম, ০৭ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): : শুক্রবার শুরু হতে যাচ্ছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচ। এই ম্যাচ নিয়ে নতুন করে ভাবতে চান অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

যদিও ঘরের মাঠে খেলা তারপরও ইংল্যান্ডের মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে সাফল্য পাওয়া কঠিন হবে বলেই মনে করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তবে পরিকল্পনা অনুসারে খেলতে পারলে সফরকারীদের বিপক্ষে ভালো করা সম্ভব বলে মনে করছেন ঘরের মাঠে টানা ছয় সিরিজ জেতা অধিনায়ক।

এর জন্য প্রথম ম্যাচটাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছেন মাশরাফি। বৃহষ্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘যেকোনো দ্বিপক্ষীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচ খুব গুরুত্বপূর্ণ। ইংল্যান্ডের সঙ্গে সিরিজ শুরু হচ্ছে। এ নিয়ে দলের সবাই খুব রোমাঞ্চিত। আমরা যদি ভালো খেলে সিরিজ জিততে পারি, তাহলে ভালো লাগবে।’

সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের দিকে তাকালে আশাবাদী হতেই পারেন মাশরাফিরা। টানা ছয় সিরিজ জয়ের সঙ্গে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ চারবারের মোকাবেলায় ৩টিতেই জিতেছে বাংলাদেশ। তবে অতীতের সুখস্মৃতিতে ভাসতে নারাজ স্বাগতিক অধিনায়ক। একই সঙ্গে এবারের সিরিজে নিজেদের ফেভারিট ভাবছেন না বলেও জানান।

বলেন, ‘খেলার কথা আগে থেকে কিছু বলা যায় না। ইংল্যান্ডের ব্যাক আপ ক্রিকেটাররা অনেক ভালো। যারা এসেছে, ওরা অভিজ্ঞ। তাই আমাদেরকে ফেভারিট বলা কঠিন। আশা করছি, ভালো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে। সেটার জন্য আমরা প্রস্তুত।’

গত দুই বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে দুবার হারিয়েছে বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের মতো এত বড় আসরে এমন অর্জন সহজ ব্যাপার না হলেও মাশরাফির দৃষ্টি দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স ঘিরে। বিশেষ করে দলের ব্যাটিং নিয়ে।

ওপেনিংয়ে রানে নেই সৌম্য সরকার। তাছাড়া স্লগ ওভারে রান খরায় ভুগছেন সাকিব-মুশফিকরা। যার জ্বলন্ত প্রমাণ সদ্য সমাপ্ত আফগানিস্তান সিরিজ। প্রথম ম্যাচে ক্রিজে থিতু হয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়ে এসেছেন ব্যাটসম্যানরা।

আর দ্বিতীয় ম্যাচে ভেঙে পড়ে পুরো ব্যাটিং ইউনিট। শেষ ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ভালো ব্যাট করলেও তাকে যথোপযুক্ত সমর্থন দিতে পারেনি টেইলএন্ডাররা। তাই ইংলিশদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে এসব বিষয় ভাবাচ্ছে স্বাগতিক অধিনায়ককে, ‘গত সিরিজে আমাদের ব্যাটিং অনেক বাজে হয়েছে।

স্লগ ওভারে ৫-১০ রানও অনেক ব্যাপার। বিশেষ করে এই ধরনের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সব জায়গায়ই ঠিক খেলতে হবে। যে জায়গায় ভুল ছিল সেসব ঠিক করতে হবে, যেসব ঠিক করেছি, সেসব ধরে রাখতে হবে।’

শেষ প্রস্তুতি ম্যাচে ইমরুল-মুশফিক-নাসিরের রানে ফেরায় বেশ স্বস্তিতে আছেন টাইগার অধিনায়ক। বলেন, ‘ইমরুলের ইনিংস আমরা দেখিনি। তবে সে অসাধারণ ইনিংস খেলেছে। দলের জন্য এটা স্বস্তিদায়ক।

দলের সবাই খুব খুশি যে প্রথম ম্যাচে ৩৭ করে বাদ পড়ার পরেও ইমরুল মানসিক ও শারীরিকভাবে প্রস্তুত ছিল এবং প্র্যাকটিস ম্যাচে একটা সেঞ্চুরি করেছে। তাছাড়া মুশফিক-নাসিরও রানে ফিরেছে।’

এ সময় দলের ‘বিস্ময় বালক’ মুস্তাফিজুর রহমানের অভাবটা ফুটে ওঠে মাশরাফির কণ্ঠে। ইনজুরির কারণে এ মুহূর্তে দলের বাইরে আছেন কাটার মাস্টার। অধিনায়কের প্রত্যাশা, দ্রুত সেরে উঠবেন এই বাঁহাতি পেসার। তার প্রত্যাবর্তনে বাড়বে দলের বোলিং শক্তি।

তবে মুস্তাফিজ না থাকলেও ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের রুখতে বাকিরা যথেষ্ট বলে মনে করেন মাশরাফি। তার ভাষায়, ‘গত ১০ মাস আমরা কোনো ম্যাচ খেলিনি। খেলার ভেতর থাকলে বোলারদের ভুলগুলো দ্রুত ধরা পড়ে। শিখতে পারে তাড়াতাড়ি। তবে শেষ ম্যাচে বোলাররা ভালো বল করেছে।’

আজকের ম্যাচের উইকেট প্রসঙ্গে মাশরাফি বলেন, ‘গত দুবছর যদি বাংলাদেশের উইকেট দেখেন, খুব বেশি টার্নিং উইকেট ছিল না। আমরা স্পোর্টিং উইকেটে খেলেছি এবং আমাদের ব্যাটসম্যানরা ভালো করেছে। আমি তাই মনে করি না আমরা শুধু স্পিনেই নির্ভর করব। আমাদের সব বিভাগই ভালো করছে। আমরা গোটা দলের ওপরই ভরসা করছি।’

মতামত