টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে সবচেয়ে বেশি পূজা মণ্ডপ রাউজানে, কম সন্দ্বীপে

durচট্টগ্রাম, ০৬ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টগ্রাম জেলার ১৪ উপজেলা ও দুটি থানায় ১৪৩৯টি মণ্ডপে প্রতিমা পূজা ও পারিবারিকভাবে ২৫০টি ঘটপূজা হচ্ছে।

জেলার মধ্যে এবার রাউজানে সবচেয়ে বেশি ২২২টি এবং সবচেয়ে কম সন্দ্বীপের ২৩টি মণ্ডপে পূজা হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চট্টগ্রাম জেলা শাখা সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত।

বৃহস্পতিবার (০৬ অক্টোবর) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে পরিষদের চট্টগ্রাম জেলা শাখা আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে বর্ণাঢ্য আয়োজনে চট্টগ্রাম জেলার ১৪ উপজেলা ও দুটি থানায় ১৪৩৯টি মণ্ডপে প্রতিমা পূজা ও পারিবারিকভাবে ২৫০টি ঘটপূজা হচ্ছে। এর মধ্যে বোয়ালখালীতে ১১০টি (ঘটপূজা ২৮টি), পটিয়ায় ১৭১টি, আনোয়ারায় ১৪৫টি (ঘট ৪১), বাঁশখালীতে ১৬১টি (ঘট ৮০), মিরসরাইয়ের দুই থানায় ৮৩টি, সীতাকুণ্ডে ৫৮টি, হাটহাজারীতে ১০১টি, ফটিকছড়িতে ১০২টি, রাঙ্গুনিয়ায় ১৬৪টি (ঘট ১৯), লোহাগাড়ায় ১০০টি, সাতকানিয়ায় ১১০ (ঘট ৪৯), চন্দনাইশে ৯০টি মণ্ডপে পূজা হবে।  প্রতিটি মণ্ডপে সরকারিভাবে ৫০০ কেজি চাল, পারিবারিক পূজায় ৪০০ কেজি চাল দেওয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অসীম কুমার দেব। তিনি দুর্গাপূজায় চার দিনের ছুটি, বোয়ালখালীর কড়লডেঙ্গা মেধসমুনির আশ্রমকে জাতীয় তীর্থ ঘোষণার দাবি জানান।

বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন পরিষদের সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত। উপস্থিত ছিলেন উপদেষ্টা পরিমল কান্তি চৌধুরী, সাবেক সভাপতি দীলিপ কুমার মজুমদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট চন্দন বিশ্বাস, সহসভাপতি বিজয় গোপাল বৈষ্ণব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ পালিত, দপ্তর সম্পাদক বিকাশ মজুমদার, সদস্য সাগর মিত্র প্রমুখ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত