টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পেলেন ইয়োশিনরি ওহসুমি

noচট্টগ্রাম, ০৩ অক্টোবর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): চলতি বছরের চিকিৎসা শাস্ত্রের নোবেল পেয়েছেন জাপানের ইয়োশিনরি ওহসুমি। কোষের কর্মপদ্ধতি বিষয়ক গবেষণার জন্য নোবেল পান টোকিও ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির এই গবেষক।

সোমবার সকালে সুইডেনের স্টকহোমে নোবেল পুরস্কার কমিটি এ ঘোষণা দেয়।

নোবেল কমিটির বরাত দিয়ে ওয়াশিংটন পোস্ট জানিয়েছে, জীবদেহের কোষ নিয়ে এবং কোষের বিকার নিয়ে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ইয়োশিনোরিকে এ সম্মান দেওয়া হয়েছে।

নোবেল কমিটির দেয়া বিবৃতিতে জানানো হয়, ইয়োশিনোরি ওশুমি বিভিন্ন শারীরিক প্রক্রিয়ায় ‘অটোফ্যাগি’র গুরুত্ব বোঝার উপায়ের ব্যাপারে আলোচনা করেছেন, যা বিষয়টি নিয়ে বোঝার বিভিন্ন পথ খুলে দিয়েছে। ইয়োশিনোরির মূল কাজ অটোফ্যাগি নিয়ে। জীববিজ্ঞানের ভাষায় অটোফ্যাগি মানে হচ্ছে অকোজো জিন আপনা-আপনি ধ্বংস হওয়া। বিবৃতিতে বলা হয়, অটোফ্যাগি বিকৃতি রোগ তৈরি করতে পারে। অটোফ্যাগি প্রক্রিয়া ক্যানসার ও স্নায়ুর বিভিন্ন রোগের কারণ হতে পারে।

ইয়োশিনোরি ওশুমি ১৯৪৫ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি জাপানের ফুকুওয়াকায় জন্মগ্রহণ করেন। টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর শেষ করে নিউইয়র্কের রকফেলার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হন। সেখান থেকে পোস্ট ডক্টরাল শেষ করে ফিরে যান নিজ দেশে। ১৯৭৭ সালে টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা সহকারী হিসেবে যোগ দেন। ১৯৮৬ সালে ওই প্রতিষ্ঠানে লেকচারার হিসেবে যোগ দেন। ১৯৮৮ সালেই তিনি সহযোগী অধ্যাপক হয়ে যান। ২০০৪ সালে তিনি জাপানের হায়ামার দ্য গ্রাজুয়েট ইউনিভার্সিটি ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিজে অধ্যাপক পদে যোগ দেন।

কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ইয়োশিনোরি জাপান অ্যাকাডেমি প্রাইজ, আসাহি প্রাইজ, কিয়েটো প্রাইজ, ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর বায়োলজিসহ বিভিন্ন পদকে ভূষিত হন।
১৯০৫ সালে নোবেল পুরস্কার প্রদান শুরু হওয়ার পর থেকে এটি চিকিৎসা ক্ষেত্রে ১০৭ তম পুরস্কার প্রদানের ঘটনা।

ম্যালেরিয়া ও মৌসুমী রোগের চিকিৎসায় অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে গত বছর তিন বিজ্ঞানীকে চিকিৎসায় নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়েছিল।

নতুন বার্তা

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত