টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ফ্লাইওভার নির্মাণে জনমানুষ যেন সুযোগ বঞ্চিত না হয়

5388চট্টগ্রাম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস): কুমিল্লা-৯ (লাকসাম-মনোহরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, চট্টগ্রামে নির্মাণাধীন আকতারুজ্জামান ফ্লাইওভারকে লালখানবাজার থেকে শাহ আমানত বিমানবন্দর পর্যন্ত সম্প্রসারিত করা হবে। এতে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার বাস্তবায়ন হবে। তবে ফ্লাইওভার নির্মাণের ফলে জনমানুষ যেন সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

চট্টগ্রামে নির্মিত ও নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারগুলোর অনিয়ম-দুর্নীতি এবং নির্মাণ কাজের ত্রুটি-বিচ্যুতি তদন্তের জন্য গঠিত ৬ সদস্যের উপ-কমিটির প্রধান সংসদ সদস্য তাজুল ইসলাম এমপি আজ বৃহস্পতিবার এ কথা বলেছেন।

দুপুরে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের সম্মেলন কক্ষে গণমাধ্যম কর্মীদের তিনি বলেন, চট্টগ্রাম হচ্ছে বাংলাদেশে নাভি। চট্টগ্রাম বন্দর না থাকলে আমরা ভিশন ২০২১ এর স্বপ্ন দেখতে পারতাম না। ‍

তিনি বলেন, চট্টগ্রামে নির্মানাধীন আকতারুজ্জামান ফ্লাইওভারকে লালখান বাজার থেকে শাহ আমানত বিমান বন্দর পর্যন্ত সম্প্রসারিত করা হবে। এতে করে প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছার বাস্তবায়ন হবে। তবে ফ্লাইওভার নির্মাণে ফলে জন মানুষ যেন তাদের সুযোগ থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

তাজুল ইসলাম বলেন, মুরাদপুর লালখান বাজার ফ্লাইওভারকে বারিক বিল্ডিং হয়ে বিমান বন্দর পর্যন্ত এবং শাহ আমানত সেতু পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার ইচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর। আমরা সে আগ্রহের বাস্তবায়ন করছি।

এমপি তাজুল ইসলাম আরো বলেন আমাদেরকে মাটির টানে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন বর্তমানে পরিকল্পনা মতে যে কাজ চলছে তা যদি সে মতে সমাপ্ত হয় তাহলে চট্টগ্রাম যোগাযোগের অনেক সমস্যার সমাধান হবে। অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য এটা বড় ধরনের মাইল ফলক হিসেবে কাজ করছে।

তিনি বলেন আমরা ফ্লাইওভার নির্মান কাজ স্বশরীরে পর্যবেক্ষ করবো এর একটা প্রতিবেদন মন্ত্রনালয়ে জমা দেবো। সিডিএ তাদের যে তথ্য আছে তা উপস্থাপন করেছেন । আমরা সেটা দেখেছি এখন সরেজমিন পরিদর্শন করে একটা প্রস্তাবনা দেবো।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন ফ্লাইওভার নির্মানে চট্টগ্রামের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য গুলোর কোন হানি ঘটবেনা। সবকিছুর সাথে সামঞ্জস্য রেখেই এ ফ্লাইওভার নির্মান কাজ সমাপ্ত করা হবে। তিনি বলেন নির্মানের পর এসব ফ্লাইওভার রক্ষনা বেক্ষনের জন্য তদারকির ব্যবস্থা করা হবে।

চট্টগ্রামে নির্মিত ও নির্মাণাধীন ফ্লাইওভারগুলোর অনিয়ম-দুর্নীতি এবং নির্মাণ কাজের ত্রুটি-বিচ্যুতি তদন্তের জন্য ৬ সদস্যের উপ-কমিটি গঠন করে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটি। তদন্ত কাজ শুরু করতে কমিটির সদস্যরা আজ চট্টগ্রাম এসেছেন।

কমিটিতে কুমিল্লা-৬ (লাকসাম) আসনের সংসদ সদস্য তাজুল ইসলাম সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ মহিবুর রহমান, চট্টগ্রাম-১২ আসনের সাংসদ সামশুল হক চৌধুরী ছাড়াও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের তিন কর্মকর্তা (যুগ্ম ও উপ-সচিব পদ মর্যাদা) রয়েছেন।

সিডিএ সম্মেলনে কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, নির্বাহী প্রকৌশলী ও প্রকল্প পরিচালক মাহফুজুর রহমানসহ বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বহদ্দারহাট ফ্লাইওভার নির্মাণকালে গার্ডার ধসে দুর্ঘটনায় হতাহত, তিন বছর পর র‌্যাম্প নির্মাণ, আগের নকশায় নির্মিত হচ্ছে কিনা, কাজের ক্রুটি, নির্মাণের পর তদারকিতে অবহেলাও খতিয়ে দেখবে এ কমিটি।

একইভাবে কদমতলী এলাকার দুটি ফ্লাইওভার নির্মাণে নানা দিক খতিয়ে দেখবেন কমিটির সদস্যরা। এছাড়াও নির্মাণাধীন মুরাদপুর-লালখান বাজার ফ্লাইওভার নির্মাণে অনিয়ম, কাজের ত্রুটি-বিচ্যুতি খতিয়ে দেখা হবে।

মতামত