টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

পদুয়ার মেধাবী শিক্ষার্থী লিমা চলে গেলেন না ফেরার দেশে

রায়হান সিকদার
লোহাগাড়া

liচট্টগ্রাম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস)::  চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে যুদ্ধ করে অবশেষে হার মানতে হয়েছে মেধাবী শিক্ষার্থী দগ্ধ শাহিদা আক্তার লিমাকে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় চমেক হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধন অবস্থায় দুনিয়ার মায়া ত্যাগ করে পরপারে চলে যান লিমা।

লিমার খালা জয়নব বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি এ প্রতিবেদককে ফোনে জানান, ভাই আর নিউজ করতে হবেনা সাহায্যও লাগবেনা আমার ভাগনি মারা গেছে।

জয়নব জানান, দুপুরে লিমার একটি হাত কেটে ফেলা হয়। এর পর পায়ের অপারেশন করার জন্য তাকে অক্সিজেন লাগানো হয়। কিছুক্ষন পর অক্সিজেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক আবদুল্লাহ আল কাউছার পরীক্ষা করে দেখেন লিমার মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ লিমার মা বাবার কাছে হস্তান্তর করা হবে।

গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার পদুয়া এলাকায় বৈদ্যুতিক তাঁরে জড়িয়ে দগ্ধ হয় লিমা।

তার শরীরে ২০ শতাংশ দগ্ধ হলেও তা পরিমাণে গভীর এবং রক্তের সাথে জীবাণু মিশে যাওয়ায় লিমার অবস্থা আশংকাজনক ছিল। বুধবার ডাক্তার কাউছার বলেছিলেন লিমাকে বাঁচানো কঠিন হবে।

বুধবার বিকালে চমেক হাসপাতালে গিয়ে সরেজমিনে দেখা যায় লিমার অবস্থা। হাসপাতালে সাথে থাকা লিমার খালা জয়নাব এ প্রতিবেদকের কাছে তুলে ধরেছিলেন লিমা দগ্ধ হওয়ার সেই করুন চিত্র।

হাসপাতালে কান্নাজড়িত কন্ঠে তিনি বলেছিলেন, গত ১৫ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকাল তিনটায় লিমা তার আরো তিন বান্ধবীসহ পাশের চাচার বাড়ীর ছাদে উঠেছিল কাপড় শুকাতে দিতে।

কিন্তু সেখানে যে তার মৃত্যু অপেক্ষা করছিল হয়তো জানতোনা লিমা। ছাদের একপাশে বৈদ্যুতিক তার সেঁত সেঁতে পানির সাথে আর্থিং হয়ে পড়েছিল আগ থেকেই। তিন বান্ধবীসহ ছবিও তোলেন লিমা সেখানে। এসময় তাদেরকে কিছুটা বৈদ্যুতিক শক করে। বৈদ্যুতিক শকে আঘাত পেয়ে অপর তিন বান্ধবী নিজেদের জীব বাঁচাতে সক্ষম হলেও লিমা সেখানেই অচেতন হয়ে মুহুর্তেই লুটিয়ে পড়ে ।

তার তিন বান্ধবীর চিৎকার শুনে বাড়ীর লোকজন ছুটে আসলেও ততক্ষনে লিমার শরীরের ২০শতাংশ বিদ্যুতের আগুনে দগ্ধ হয়ে যায়।

লিমার মামা জসিম জানান, দগ্ধবস্থায় লিমাকে প্রথমে পদুয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার ও রাতেই চমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

লোহাগাড়া পদুয়া সুফি ফতেহ আলী ওয়াইসী মহিলা মাদ্রাসার দশম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী লিমা। পদুয়া মৌলবী পাড়ার দিনমজুর সৈয়দ আহমদের ২ ছেলে ২ মেয়ের মধ্যে লিমা দ্বিতীয়।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত