টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় উৎসব মুখর পরিবেশে বাদশা-নোভার বিয়ে

bচট্টগ্রাম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ (সিটিজি টাইমস):: দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বর্ণাঢ্য আয়োজনে ধুমধামের মধ্য দিয়ে হয়ে আজ বুধবার সম্পন্ন হল রংপুরের সিংহ বাদশা’র সঙ্গে চট্টগ্রামের সিংহী নোভা’র বিয়ে।

বেলা ১১টায় বিয়ের উৎসব মুখর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়।এ উপলক্ষে চিড়িয়াখানাকে সাজানো হয়েছে রং-বেরঙ্গে। এর মধ্যে দিয়ে তাদের নতুন জীবন শুরু হয়েছে এবং সিংহীনোভারদীর্ঘ ১১বছরের একাকিত্ব জীবন অবসান হয়েছে।

রংপুরের সিংহ বাদশা’র সঙ্গে চট্টগ্রামের সিংহী নোভা’র বিয়ের তোড়জোড় চলছিল অনেকদিন ধরেই। অবশেষে আজ ‘সাতপাকে’ বাঁধা পড়ছে তারা।

বিয়েতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন।এ ছাড়া চিড়িয়াখানার পৃষ্ঠপোষক, পরিচালনা কমিটির সদস্য, কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও অংশ নেন। তবে সাংবাদিকদের সংখ্যা ছিল বেশি।

চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা সূত্রে জানা গেছে, ২০০৫ সালের ১৬ জুন চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানায় জন্ম নিয়েছিল সিংহ শাবক ‘বর্ষা’ ও ‘নোভা’। দুই বোনের জন্মের কিছুদিন পর তাদের মা ‘লক্ষ্মী’ এবং ২০০৮ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি বাবা ‘রাজ’ মারা যায়।

এরপর আর কোনো নতুন সিংহ চিড়িয়াখানায় আনা হয়নি। একই সঙ্গে চিড়িয়াখানায় আর কোনো পুরুষ সিংহ না থাকায় ‘বর্ষা’ ও ‘নোভা’ কুমারী থেকে যায়। তাদের ঘর-সংসার করাও হয়ে ওঠেনি।

এতদিন অনেক খোঁজখবর করেও উপযুক্ত পুরুষ সিংহ পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি সংবাদপত্রের মাধ্যমে রংপুর চিড়িয়াখানায় দুটি পুরুষ সিংহ থাকার খবর পায় চট্টগ্রাম চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ।

এরপর বর্ষা ও নোভার মধ্য থেকে একটি রংপুর চিড়িয়াখানার সঙ্গে অদলবদল করার ব্যাপারে আলোচনার ভিত্তিতে সমঝোতায় উপনীত হলে বর্ষাকে গত ২৮ আগস্ট চট্টগ্রাম থেকে রংপুরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ‘রাজা’র সঙ্গী হবে বর্ষা।

বিয়ে উপলক্ষে উৎসব মুখর পরিবেশে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে তা আগে থেকেই আঁচ করা গিয়েছিল। এবং সে অনুযায়ী পূর্বে দাওয়াতপত্রও পৌঁছিয়ে দেওয়া হয়েছিল সাংবাদিকদের কাছে। সেই দাওয়াতপত্রটি যেনো কোনো অংশেই মানুষের বিয়ের দাওয়াপত্রের চেয়ে কম ছিল না।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত