টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

২৮ বছর আগে শুল্ক ফাঁকি: চট্টগ্রামে দুই ব্যবসায়ীর কারাদণ্ড

চট্টগ্রাম, ১৭ আগস্ট (সিটিজি টাইমস): ২৮ বছর আগে শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার একটি মামলায় চট্টগ্রামের দুই ব্যবসায়ীকে ৬ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। একইসঙ্গে অনাদায়ী শুল্কের সমপরিমাণ অর্থ দুই ভাগ করে দুজনকে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ মীর মো. রুহুল আমিন এ রায় দেন।

দণ্ডিত দুইজন হলো- চট্টগ্রামের বক্সিরহাটের আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান মেসার্স এস.কে. এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. কুতুব উদ্দিন এবং ধনিয়ালাপাড়ার সিঅ্যাণ্ডএফ প্রতিষ্ঠান গুডউইল কর্পোরেশনের মালিক মো. আনিসুজ্জামান ইকবাল।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি এস.কে. এন্টারপ্রাইজের আমদানি করা টায়ার-টিউব চট্টগ্রাম বন্দর থেকে খালাস করাতে ভূয়া বিল অব এন্ট্রি দাখিল করেছিল গুডউইল কর্পোরেশন। পরস্পরের যোগসাজশে এক লাখ ৫২ হাজার ৫২৪ টাকা শুল্ক ফাঁকি দেওয়ার অপরাধে ১৯৮৮ সালের ১ নভেম্বর বন্দর থানায় দুজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন দুর্নীতি দমন ব্যুরোর তৎকালীন পরিদর্শক (বর্তমানে চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক) আজিজ আহমেদ ভূঁইয়া। নিজেই তদন্ত করে দুই জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলা।

২০১৩ সালের ২৪ অক্টোবর আদালত দণ্ডবিধির ৪২০ ও ৪৬৮ ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর আদেশ দেন। মামলায় মোট চারজনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

দণ্ডবিধির ৪২০ ধারায় আদালত দুই জনকে তিন বছরের কারাদণ্ড এবং ৭৬ হাজার ২৬২ টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। একইসঙ্গে দণ্ডবিধির ৪৬৮ ধারায় আরও তিন বছরের কারাদণ্ড এবং ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ২ মাসের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত