টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে গৃহবধূকে হত্যার দায়ে ভাসুরের যাবজ্জীবন

চট্টগ্রাম, ১৪ আগস্ট (সিটিজি টাইমস):  চট্টগ্রামে ছোট ভাইয়ের স্ত্রীকে হত্যার দায়ে ভাসুর নুর মোহাম্মদকে যাবজ্জীবন কারাদ- এবং ২০ হাজার টাকা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ড দিয়েছে আদালত।

রবিবার বিকালে চট্টগ্রাম বিভাগীয় জননিরাপত্তা ট্রাইব্যুনালের বিচারক সৈয়দা হোসনে আরা এ রায় ঘোষণা করেন। একই রায়ে আদালত নিহত গৃহবধূ নাজমা আক্তারের শাশুড়ি আয়শা বেগমকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন।

বিভাগীয় জননিরাপত্তা ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পিপি অ্যাডভোকেট মো.জাহাঙ্গীর আলম এ খবর নিশ্চিত করে বলেন, আসামি নূর মোহাম্মদের বিরুদ্ধে দন্ড -বিধির ৩০২ ধারায় আনা অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন সাজা দিয়েছেন। দণ্ডিত আসামি নূর মোহাম্মদ বর্তমানে হাজতে রয়েছেন।

আদালত সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মহানগরীর পাহাড়তলী থানার উত্তর হালিশহর এলাকায় পারিবারিক ঝগড়ার জের ধরে ১৯৯৬ সালের ৬ জানুয়ারি সকালে গৃহবধূ নাজমা আক্তারকে ছুরি দিয়ে জবাই করে হত্যা করে শশুর বাড়ির লোকজন। এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূ নাজমার বেগমের বড় বোন নাসিমা আক্তার বাদি হয়ে পরদিন নগরীর পাহাড়তলী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় নিহত নাজমার স্বামী-শ্বাশুড়ি, দেবর ননদ ও ভাসুরসহ ছয়জনকে আসামি ককরা হয়।

একই বছরের ১৮ জুন পুলিশ তদন্ত শেষ করে শ্বাশুড়ি আয়শা বেগম ও ভাসুর নূর মোহাম্মদকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশীট) দাখিল করেন। ২০০২ সালের ১০ জুলাই আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরু করে আদালত।

বিচার চলাকালে রাষ্ট্রপক্ষ আদালতে মোট ১২ জন সাক্ষী উপস্থাপন করে। সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে প্রায় ২০ বছর পর রবিবার আদালত মামলার রায় ঘোষণা করেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত