টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

অলিম্পিক্স : আবেগের সাতকাহন

গিয়াস উদ্দীন

চট্টগ্রাম, ১৪ আগস্ট (সিটিজি টাইমস):  বীচ ভলিবল দেখানোর ফাঁকে একটা অদ্ভুত সুন্দর ছবি দেখিয়েছিলেন ক্যামেরাম্যান। সূর্যাস্তের গলে যাওয়া সোনার মতো মায়াবী রঙ আকাশ বেয়ে নামছে। আর আকাশ ছুঁয়ে দাঁড়িয়ে তা দেখছেন যীশু। এক সময় ক্যামেরার অদ্ভুত সুন্দর অবস্থানের ফলে তৈরি হল আরও একটা অদ্ভুত সুন্দর ফ্রেম। যীশু যেন বাড়িয়ে দেওয়া দু হাত দিয়ে আগলে রাখছেন ওই মায়াবী সূর্যটাকে। পরম আবেগে, পরম মমতায়।

চার বছর পর পর অলিম্পিক্স । এবার পৃথিবীর সবচে রোম্যান্টিক শহর রিওতে। আবেগের উৎসব। বরাবরই আমি বোল্ট আর ফেলপ্‌সের ফ্যান । গতির রাজা আর জলদানবে মিশে আছে আমার স্বপ্ন । চার বছর পর পর এরাই আমার স্বপ্নের ঠিকানা হয়ে ওঠে। আমার মতো হয়তো আরও অনেকেই আছেন। স্বপ্নের রং বদলালেও তাদের আবেগটাও ঠিক আমারই মতো। নিজেদের দেশ পৃথিবীর এই সব থেকে সুন্দর উৎসবে কখনো পদক জেতেনি। জানি না কোনও দিন এই নানান রঙের ভেদাভেদ ভুলে কোনও একদিন আমরা সবাই মিলে লাল সবুজ পতাকা উড়াতে উড়াতে কোন পদক জয়ীর সাথে আবেগে মিশে যেতে পারবো কিনা । সব্বাই মিলে এক সঙ্গে কাঁদতে, এক সঙ্গে তুমুল উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়তে পারবো কি না। তবু এই চার বছর পর পর আমরা বহু মানুষ প্রিয় পতাকার রঙে সেজে উঠে তৈরি করি আবেগের রামধনু।

আসলে তো আমাদের নানান না পাওয়া, নানান ক্ষোভ, নানান যন্ত্রণা এই সব কিছুর সমাধান খুঁজি আমাদের ওই প্রিয় দলের কাছে , প্রিয় খেলোয়াড়ের কাছে, প্রিয় রঙের কাছে। যেন আমার হয়ে সবার সামনে জবাব দিয়ে যাবে আমাদের ওই দলেরাই। সব অপ্রাপ্তির কষ্ট ভুলিয়ে দেবে তারা, আমাদের সঙ্গে ঘটা রোজকার নানান অবিচারের জমে থাকা সব কিছুর জবাব দেবে মাঠের ঐ লড়াকুরা । এ ভাবেই আমরা স্বপ্ন দেখি একটা দলকে ঘিরে। একটা পতাকাকে ঘিরে। স্বপ্নগুলো প্রত্যেকেরই একই রকম। কেবল স্বপ্নের রং-গুলো আলাদা। এ তো আসলে চার বছর পর পর আসা আমাদের ভালোবাসার উৎসব, আমাদের আবেগের উদযাপন। আমাদের রোজকার অপ্রাপ্তি আর প্রতিনিয়ত জমতে থাকা ক্ষোভে ভরা বর্ণহীন, একঘেয়ে জীবনে এ আসলে এক মাসের আবেগ আর স্বপ্নের আবির খেলা।

যা দিয়ে শুরু করেছিলাম লেখাটা সেখানে ফেরত যাই। আজ ওই অস্তগামী সূর্যটাকে যীশু যেমন পরম আদরে আগলে রেখেছিলেন দু হাতের মধ্যে, দেখেই মনটা কেমন করে উঠেছিল। আসলে ওই মুহূর্তই বলে দেয় আমাদের গভীরতম অনুভবের কথা। আসলে আমরাও প্রত্যেকে ঠিক ওই যীশুর মতোই পরম আবেগে, পরম মমতায় আগলে রাখি আমাদের প্রিয় দল, প্রিয় পতাকা। ওই মায়াবী আলো ছড়ানো সূর্যটাকে আগলে রাখার মতোই। দল, পতাকা আলাদা হলেও আমরা ঠিক একই মমতায় আগলে রাখি আমাদের আবেগ। আমাদের ভালোবাসা। আগলে রাখতে চাই প্রিয় দলকে ঘিরে আমাদের স্বপ্ন, দাবিদাওয়া। আজ ওই দৃশ্যটা দেখে বুঝলাম আমরা প্রত্যেকেই আসলে মমতা মাখা, আবেগ ঘন একেক জন যীশু। আগলে রাখি আমাদের ভালোবাসার ঠিকানা।

মতামত