টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ওমান থেকে লাশ হয়ে ফিরল রাউজানের আশীষ

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ০৮  আগস্ট (সিটিজি টাইমস):  একটু সুখের আশায় রক্ত বাঁধনের মানুষগুলোকে পিছনে রেখে সাত সমুদ্র তের নদী পাড়ি দিলেও সে সুখের দেখা পেলনা, বুকভরা শূণ্যতার শূণ্যস্থান সঠিকভাবে পূর্ণ হলো না। দারিদ্রতার কষ্ট আর হাহাকার বুকে নিয়ে সুখের আশায় বৃথা এই দৌঁড় ঝাপ দিতে দিতেই সড়ক দুর্ঘটনা কেড়ে নিল রাউজানের আশীষের প্রাণ। সামাজিক জীবনে একটু ভাল থাকার আশায় প্রায় ৬ বছর আগে ওমানে যান। টানা ৬ বছর ওমানে থাকায় স্ত্রী, পুত্র বা স্বজনদের সাথে দেখা হয়নি দীর্ঘ সময়। আগামী মাসেই দেশে আসার কথা ছিল। দীর্ঘ সময় পর স্বজনদের হয়তো চোখ ভরে দেখার স্বপ্ন ছিল ওমান প্রবাসী আশীষ দে (৪০)’র। তার সে ইচ্ছে পূরণ হয়নি। গতকাল সোমবার প্রবাস হতে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরলেন রাউজান উপজেলার ডাবুয়া ইউনিয়নের কলমপতি এলাকার আশীষ দে (৪০)। জানা যায়, গত শনিবার (৩০ জুলাই) বাংলাদেশ সময় রাত ২টা ও সে দেশের সময় রাত ১২টায় দিকে চাহাম বাই-সাইকেল চালিয়ে খাওয়ার পার্সেল দিতে যাওয়ার সময় পেছন দিক থেকে একটি মাইক্রোবাস ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে মারা যান আশীষ। স্থানীয় দ্বীপ্ত চৌধুরী জানান, গতকাল সোমাবার চট্টগ্রামস্থ শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর হয়ে নিহত আশীষের লাশ রাউজানে পৌঁছে। লাশবাহী এ্যাম্বুলেন্স কলমপতি এলাকায় পৌঁছলে নিহতের মা, আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশীর কাঁন্নায় ভারি হয়ে ওঠে এখানাকার পরিবেশ। নিহত আশীষের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, পুত্রহারা মায়ের আহাজারী আর কাঁন্না কিছুতেই থামছে না। ছেলের আকস্মিক মৃত্যুকে মেনে নিতে পারছেন না, বার বার জ্ঞান হারাচ্ছেন তিনি। নিহতের লাশ আসার খবরে ছুটে আসা এলাকার লোকজনের মধ্যে কেউ আশীষের মাকে শান্তনা দিচ্ছেন আবার কারো চোখে অশ্রু গড়িয়ে পড়তে দেখা যায়। স্বামীকে হারিয়ে নিরবে কাঁদছেন নিহতের স্ত্রীও। নিহত আশীষের অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া ছেলে জয় দে বলেন, বাবার সাথে শেষ কথা হয় মুঠোফোনে। বাবা আগামী মাসে দেশে আসবে বলেছিল। আমার জন্য অনেক কিছু আনার কথাও বলেছিল। বিদেশ থেকে বাবা দেশে ফিরবে বলে মনে খুব আনন্দ ছিল। হঠাৎ সড়ক দুর্ঘটনা সব আনন্দ ¤øান করে দিল। আজ (সোমাবার) বাবা দেশে ফিরেছে। বিমানবন্দর থেকে বাবা পায়ে হেঁটে বের হয়নি। একটি বাক্সে করে নিশ্চপ বাবা আমার বাড়ি ফিরল। সবাইকে সুখের সাগরে ভাসিয়ে বাবা এভাবে চলে যাবে কল্পনাও করিনি।’ সর্বশেষ গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় নিহত আশীষ দে’র লাশ বাড়ির পাশের একটি শ্মশানে দাহ করা হয়।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত