টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

জাতীয়করণের দাবীতে বিক্ষোভ আন্দোলনে উত্তাল নাজিরহাট কলেজ

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

nচট্টগ্রাম, ৩০ জুলাই (সিটিজি টাইমস)::   জাতীয়করণের দাবীতে বিক্ষোভ আন্দোলনে উত্তাল ফটিকছড়ি-হাটহাজারী সীমান্তবর্তী ঐতিহ্যবাহী নাজিরহাট ডিগ্রি কলেজ । জাতীয়করণের দাবিতে কলেজের প্রাক্তন, বর্তমান শিক্ষার্থী ও এলাকার লোকজন বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। কলেজটি জাতীয়করণের ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়ক দুই ঘন্টা অবরোধ করে রাখলে প্রায় ১০ কি.মিটার এলাকা যানজটের কবলে পড়ে। দুর্ভোগে পড়ে দুরপাল¬ার যাত্রী সাধারণ। পরে হাটহাজারী থানার একদল পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

শনিবার তাঁরা ক্লাস বর্জন করে এসব কর্মসূচিতে অংশ নেন। এসয় তারা কলেজ অধ্যক্ষের কার্যালয়ে তালাবদ্ধ করে তাঁকে অবরুদ্ধ করে রাখেন। বেলা একটার দিকে তিনি অবমুক্ত হন।

বেলা সাড়ে ১০টায় কলেজের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী একযোগে ক্লাস বর্জন করে বাইরে বেরিয়ে আসেন। তাদের সাথে যোগ দেন কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও এলাকার লোকজন। এরপর তাঁরা বিক্ষোভ মিছিলসহকারে চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কের মানববন্ধনে অংশ নেন। মানববন্ধন শেষে নতুন রাস্তা মাথা এলাকায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ইসমাইল হোসেন বলেন, ‘সড়কে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে সড়ক অবরুদ্ধ হওয়ার খবর পেয়ে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাস্তার যানজট মুক্ত করে। পরে এক ঘন্টা চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়।’

প্রাক্তন ছাত্র মাসুদ রানা ও মঈনুল হোসেন মহিউদ্দিনের সঞ্চালনায় সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীর মধ্যে ওমর ফারুখ ডিউক, কামরুল অপু, আবু বক্কর, হোসাইনুল করিম সুরুজ, ইকবাল হোসেন সিকু, মোজাম্মেল, এনামুল হক এনাম, আমান উল­াহ আমান, মুন্না, আরফাত, নওশাদ, গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী, রহমত উল¬াহ, সাহেদুল আলম, সাইফুল¬াহ, আবদুল করিম, সিরাজুল ইসলাম, জেসমিন আকতার, সানজিদা হোসাইন, সানজিদা ইসলাম ও শারমিন আকতার প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ১৯৪৯ সালে প্রতিষ্ঠিত প্রাচীন কলেজটি শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নসহ সাফল্যের ধারাবাহিকতা রেখে চলেছে। বর্তমানে সেখানে প্রায় ৩ হাজার ছাত্রছাত্রী পড়াশোনা করে। সকল ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে যোগ্যতার বিবেচনায় এ কলেজকে জাতীয়করণ করা হোক।

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে সরকার ঘোষিত ১৯০টি কলেজকে জাতীয়করনে এ কলেজকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানান, ওই তালিকা থেকে কলেজটি বাদ দিতে একটি মহল উঠেপড়ে লাগে। কলেজ অধ্যক্ষ মো. নুরুল হুদা বিষয়টি স্বীকার করেছেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত