টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চবি ও প্রিমিয়ারের ভিসি ৫ জনকে হত্যার হুমকি

vcচট্টগ্রাম, ২৮ জুলাই (সিটিজি টাইমস)::  চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী ও প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. অনুপম সেন সহ ৫ জনকে হত্যার হুমকি দিয়ে একটি উড়ো চিঠি পাঠানো হয়েছে। হত্যার হুমকি দেয়া অপর তিনজন হলেন- চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, গণজাগরণ মঞ্চ, চট্টগ্রামের সদস্য সচিব ডা.চন্দন দাশ এবং ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শওকত বাঙালি।

এ সংক্রান্ত একটি উড়ো চিঠি বৃহস্পতিবার সকালে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ড.অনুপম সেনের কাছে পাঠানো হয়েছে।যদিও চিঠিটি ডাকযোগে পাঠানোর তারিখ দেওয়া আছে জুলাই মাসের ২৫ তারিখ, যার ফরম নম্বর ট-০৩০০।

তবে এ সংক্রান্ত একটি উড়ো চিঠি প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য পেলেও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক ড.ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী পাননি বলে জানিয়ে বলেন, ‘একটি চিঠিতে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে আমি শুনেছি, যেখানে পাঁচজনের মধ্যে আমার নামও আছে। তবে আমি এসবে ভয় পাইনা। কারণ মৃত্যুর মালিক আল্লাহ। তারা মারার কে? যেদিন মৃত্যু অবধারিত হবে সেদিন এমনিতে চলে যাব।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক অনুপম সেন  বলেন, ‘আমাকেসহ আরো পাঁচজনকে ঈদের আগে হত্যার হুমকি দিয়ে এ ধরনের একটি চিঠি পেয়েছি। এর আগেও অনেকবার হুমকি দেয়া হয়েছে। হুমকি দিয়ে আতংক সৃষ্টি করার জন্যই এই চিঠি পাঠানো হয়েছে। তবে এসব হুমকি দিয়ে আমাকে স্তব্ধ করা যাবেনা।’

কমিউটার কম্পোজ করা এ চিঠিতে লেখা হয়েছে-“চট্টগ্রামে ভারতের প্রধান দালাল ড: অনুপম সেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামী লীগের প্রধান দালাল ড: ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রামে সাংবাদিকদের প্রধান দালাল রিয়াজ হায়দার, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল চট্টগ্রামের প্রধান দালাল শওকত বাঙ্গালী, গণজাগরণ মঞ্চের চট্টগ্রামের প্রধান দালাল ড: চন্দন দাশ-

আগামী কোরবানের ঈদ আপনাদের শেষ ঈদ। একাত্তর সাথে মিমাংশিত যুদ্ধাপরাধ নিয়ে আপনাদের অতিরিক্ত বাড়াবাড়ির কারণে ঐ দিনই গরুর সাথে আপনাদের কোরবানী করা হবে।

দেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করায় তোমাদের জন্য জাহান্নাম নির্ধারিত রয়েছে। জীবনের যাবতীয় ইচ্ছা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পুরণ করে নেয়ার নির্দেশ দেয়া গেলো। নির্দিষ্ট সময়ের আগেই আমাদের পরিচয় প্রকাশ করা হবে।”

এদিকে প্রাণনাশের হুমকি পাওয়ার কথা স্বীকার করে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি রিয়াজ হায়দার বলেন, এর আগেও একবার দুর্বৃত্তরা আমাকে হুমকি এমনকি আক্রমন করেছিল।

তবে এসব হুমকিতে আমি ভয় পাই না। মৃত্যু তো একদিন হবেই।

বিষয়টি নিয়ে সিএমপি পুলিশ কমিশনার ইকবাল বাহার বলেন, একটি বেনামী উড়ো চিঠি দিয়েছে। তবে কে বা কারা এ চিঠি দিয়েছে কারো নাম পরিচয় উল্লেখ করেনি। আমি তাদেরকে (হুমকি পাওয়া ব্যাক্তি) বলেছি থানায় জিডি করতে। তারপর এটা নিয়ে আমরা তদন্ত করে বের করবো কারা এ হুমকি দিয়েছে।

এর আগেও ২০১৫ সালের ২ সেপ্টেম্বর ড. অনুপম সেন এবং দুই আইনজীবিকে হত্যার হুমকি দিয়ে একটি উড়ো চিঠি দেয়া হয়েছিল আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের নামে।

মতামত