টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

এওচিয়ার ইউপি নির্বাচন: মাহমুদুল হকের করা রীট পিটিশনের আদেশের কার্যক্রম স্থগিত

বিশেষ প্রতিনিধি
সিটিজি টাইমস

চট্টগ্রাম, ১৫  জুলাই (সিটিজি টাইমস)::  দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার ৬ নং এওচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অনিয়ম, কারচুপির অভিযোগ এনে হাইকোর্টে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মাহমুদুল হক চৌধুরীর দায়েরকৃত রীট পিটিশন নং-৭৬১১/১৬ ইং এর আদেশের কার্যক্রম স্থগিত করেছে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপীল বিভাগের বিচারপতি মির্জা হোসেন হায়দারের চেম্বার আদালত। গত ১২ জুলাই এওচিয়া ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী ইসলাম মানিক লীভ টু আপীল নং-২২০৪/১৬ ইং দায়ের করলে শুনানী শেষে বিচারপতি মির্জা হোসেন হায়দার এ আদেশ দেন। বাদীর পক্ষে সুপ্রীম কোর্টের আইনজীবি এডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার শুনানীতে অংশ নেন।

এডভোকেট আব্দুল বাসেত মজুমদার জানান, মাহমুদুল হকের দায়েরকৃত রীট পিটিশনে নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি, মৃত ব্যাক্তির ভোট প্রদান ও অন্যায় ভাবে রির্টানিং অফিসার আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী নজরুল ইসলাম মানিককে বিজয়ী ঘোঘনা করেছে বলে অভিযোগ করা হয়েছিল।

নির্বাচনে পরাজিত হয়ে আদালতে ভুল ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলা করেছিল মাহমুদুল হক। নজরুল ইসলাম মানিকের আবেদনের প্রেক্ষিতে সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগের বিচারপতি মির্জা হোসেন হায়দার ঊভয় পক্ষের শুনানী শেষে মাহমুদুল হকের পক্ষে দেওয়া আদেশ স্থগিত করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নজরুল ইসলাম মানিক বলেন, নির্বাচনের মাত্র কয়েক দিন আগে মাহমুদুল হকের নেতৃত্বে আমাকে হত্যার উদ্যেশে আমার গাড়ি লক্ষ্য করে ব্যাপক গুলি ছুড়ে। আমার নির্বাচনী পোষ্টার, বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি সম্বলিত পোষ্টার ছিড়ে ফেলে এবং প্রধানমন্ত্রীকে উদেশ্য করে গালিগালাজ করিলে এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে সাতকানিয়া থানার দায়েরকৃত মামলার তদন্ত শেষে মাহমুদুল হককে ১নং অভিযুক্ত করে মোট ২৩ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জসীট দাখিল করেন।

এ সব ঘটনায় ক্ষুদ্ধ হয়ে আমাকে হয়রানী ও সুষ্ট, সুন্দর ভাবে অনুষ্ঠিত নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার কুমানষে ভুল ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে মহামান্য হাইকোর্টে মাহমুদুল হক রীট পিটিশিন দায়ের করেছিল। সুপ্রীম কোর্টের আপীল বিভাগে আমার লীভ টু আপীলের আদেশ প্রচারিত হওয়ার পর তার দায়েরকৃত রীট পিটিশনের আদেশের কার্যক্রম স্থগিত হয়ে গেল। এর ফলে এওচিয়া ইউনিয়নের নির্বাচন নিয়ে সৃষ্ট জটিলতার অবসান হলো।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত