টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

চট্টগ্রামে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যের খাবার খোলা বাজারে

rচট্টগ্রাম, ২৮  জুন (সিটিজি টাইমস):: প্রাথমিক বিদ্যালয়গামী শিশুদের শিক্ষা অর্জনে খাদ্যাভাব যেন প্রতিবন্ধক হতে না পারে সে লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার শিক্ষার্থীদের মাঝে পুষ্টিকর খাবার সরবরাহের উদ্যোগ নিয়ে যখন উপস্থিতির হার বৃদ্ধি এবং বিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার কমানো চেষ্টা করে যাচ্ছে , তখন কিছু আসাধু ব্যাবসায়ীর খোলা বাজারে অবৈধভাবে স্কুল ফিডিং প্রোগ্রামের বিনামূল্যের খাবার বিক্রি অনেকটাই ফিকে করে দিচ্ছে এই প্রকল্পের সাফল্য।

মঙ্গলবার নগরীর রিয়াজ উদ্দিন বাজারে অভিযানে চালিয়ে ১৩৫০ বিনামূল্যে বিতরণের প্যাকেট খাবার জব্দ করা হয় এবং ৬ ব্যবসায়ীকে প্রত্যেককে ৫০,০০০ হাজার করে মোট ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযানকালে উপস্থিত মানুষ খুবই বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন,গরীবের খাবারও চুরি করে বিক্রি করতে হবে!

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব রুহুল আমিনের নেতৃত্বে ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব ইশতিয়াক আহমেদ এবং হাসান বিন আলির উপস্থিতিতে রিয়াজুদ্দিন বাজারে অভিযান পরিচালনা করেন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় আইন শৃংখলার দায়িত্ব পালন করেন আর্মড পুলিশ ব্যাটিলিয়ন।

উল্লেখ্য,গতকাল বিকেলে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রুহুল আমিন দেখতে পান রাস্তায় ফেরী করে বিক্রি হচ্ছে দারিদ্র পীড়িত এলাকায় বিতরণের স্কুল ফিডিং প্রোগ্রামের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির আনুদানের উচ্চ খাদ্যগুণ সম্পন্ন প্যাকেটজাত খাদ্য। পরে তার কাছ থেকে ঠিকানা নিয়ে ম্যাজিস্ট্রেট নিজেই ৫০ প্যাকেট ক্রয় করেন এবং দোকান চিনে আসেন। পরে আজ আর্মড ব্যাটালিয়ন পুলিশের সহায়তায় অভিযান চালানো হয়। অন্যদিকে চট্টগ্রাম নগরীর কোতয়ালি এলাকায় জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাবরীনা রহমানের নেতৃত্বে ও বিআরটিএ এর সহযোগিতায় ‘মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩’ এর আওতায় পরিচালিত মোবাইল কোর্ট অভিযানে চালকের লাইসেন্স না থাকা , নিবন্ধন ও ফিটনেস বিহীন মোটরযান, নিষিদ্ধ হাইড্রোলিক হর্ণের ব্যবহার এবং হেলমেট ছাড়া মোটর সাইকেল চালনার জন্য প্রায় ২২ টি মামলায় ৯ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়। জেলা প্রশাসন পরিচালিত আজকের ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় সহায়তায় ছিলেন বিআরটিএ এর পরিদর্শক রবিউল ইসলাম ও ব্যাটালিয়ন আনসার।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য