টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মেসির দুর্দান্ত হ্যাটট্রিকে শেষ আটে আর্জেন্টিনা

spচট্টগ্রাম, ১১ জুন (সিটিজি টাইমস):: বদলি হিসেবে আধা ঘণ্টার জন্য মাঠে নামলেন লিওনেল মেসি। এর মধ্যেই দেখালেন তার পায়ের জাদু। বার্সেলোনার এই তারকা ফরোয়ার্ডের হ্যাটট্রিকে পানামাকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠে গেছে আর্জেন্টিনা।

শিকাগোর সোলজার ফিল্ড স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় শনিবার সকালে হওয়া ম্যাচের শেষ আধ ঘণ্টায় মেসির হ্যাটট্রিকের আগে প্রথমার্ধের শুরুর দিকেই আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন নিকোলাস ওটামেন্ডি। শেষ গোলটি করেন বদলি হিসেবে নামা সার্জিও আগুয়েরো।

সপ্তম মিনিটে ডি মারিয়ার ফ্রি-কিকে লাফিয়ে উঠে হেড করে বল জালে পাঠান ম্যানচেস্টার সিটির ডিফেন্ডার ওটামেন্ডি। সাইড লাইনে বসে থাকা মেসির হাতে তখন তালি আর দাড়ি গজিয়ে যাওয়া মুখে হাসি।

২৯তম মিনিটে পানামা গোলটি প্রায় শোধ করে ফেলেছিল। কর্নারের বিনিময়ে গোলের প্রচেষ্টা ঠেকান গোলরক্ষক রোমেরো।

ম্যাচের আধ ঘণ্টা পার হওয়ার পর দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে আনিবাল গদোয় মাঠ ছাড়লে আর্জেন্টিনাকে রোখা আরও কঠিন হয়ে পড়ে পানামার জন্য।

৫৪তম মিনিটে ডি-বক্সে বল পেয়ে যাওয়া হিগুয়েইন শট নেওয়ার মুহূর্তে শুয়ে পড়ে বিপদমুক্ত করেন মিলার।

ম্যাচের আয়ু এক ঘণ্টা পার হওয়ার পর সোলজার ফিল্ড স্টেডিয়ামে তুমল হর্ষধ্বনির মধ্য দিয়ে কোপা আমেরিকার এই আসরে প্রথমবার মাঠে নামেন মেসি।

গোল পেতে দেরি হয়নি চোট থেকে সেরে ওঠা এই তারকার। ৬৮তম মিনিট পানামার ডিফেন্ডারদের ভুলে ডি-বক্সে ফাঁকায় বল পেয়ে গোলের খাতা খোলেন মেসি।

প্রথম গোলটি যদি সহজে পাওয়া হয় তবে দ্বিতীয় গোলটি তো এক কথায় অসাধারণ। ৭৮তম মিনিটে ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে বাঁ পায়ের বাঁকানো ফ্রি-কিকে ডান পাশের ওপরে কোনা দিয়ে বল জালে পাঠান মেসি। গোলরক্ষকের কিছুই করার ছিল না।

আর ৮৭তম মিনিটে ডি-বক্সে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দুই জনের মধ্য দিয়ে বল জালে পাঠান আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। দুই মিনিট পর ব্যবধান ৫-০ করেন হিগুয়াইনের বদলি হিসেবে নামা ফরোয়ার্ড আগুয়েরো।

‘ডি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিলিকে ২-১ গোলে হারানো আর্জেন্টিনার পয়েন্ট ৬।

সিয়াটলে বাংলাদেশ সময়ে আগামী বুধবার সকাল আটটায় গ্রুপের শেষ ম্যাচে গতবারের রানার্সআপের প্রতিপক্ষ এরই মধ্যে বিদায় নেওয়া বলিভিয়া।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত