টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

গুপ্তহত্যাকারীরা কেউ পার পাবে না

চট্টগ্রাম, ০৮ জুন (সিটিজি টাইমস):: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, চার দশক পর হলেও একাত্তরের যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে, তারা কেউ পার পায়নি। গুপ্তহত্যায় যারা জড়িত তারাও পার পাবে না। অবশ্যই তাদের ধরা হবে এবং দেশের প্র্রচলিত আইনেই তাদের বিচার হবে।জাতীয় সংসদে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত আসনের এক সংসদ সদস্যের (এমপি) সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তব্য রাখছিলেন।

পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রীকে হত্যার প্রসঙ্গ টেনে প্রধানমন্ত্রী হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, ‘গুপ্ত হত্যা করে কেউ পার পাবে না। যারা হত্যা করছে তারা এবং তাদের প্রভু যেই হোক না কেন তাদের আমরা রেহাই দেবো না। যারা পরিবারের ক্ষতি করছে তাদের হিসাব পাই পাই করে নেবো।’

গত কয়েক দিন ধরে বেশ কয়েকটি টার্গেট কিলিংয়ের ঘটনা ঘটেছে।এ নিয়ে সারাদেশে এক ধরণের উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়েছে।

এরই প্ররিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় সংসদে দাঁড়িয়ে একথা বললেন।এর আগে তিনি সৌদি আরব সফরের সময়ও একই অঙ্গীকার করেন। তিনি বলেন, এসপিপত্নী মিতুর ঘাতকসহ টার্গেট কিলিংয়ে যারা মেতে উঠেছে তাদের বিচার হবেই।

জাতীয় সংসদে নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সংরক্ষিত আসনের এক সংসদ সদস্যের (এমপি) সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বক্তব্য রাখছিলেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এমপি ফজিলাতুন নেসা বাপ্পীর ওই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, গুপ্ত হত্যাকারীরা মসজিদের ইমাম, গির্জা, প্যাগোডায় ধর্মযাজকদের হত্যা করছে। এমনকি শিক্ষককেও হত্যা করেছে। সম্প্রতি একজন পুলিশ অফিসারে স্ত্রীকে হত্যা করেছে, যা আগে কখনও দেখিনি।

‘পুলিশের কাজ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করা। পুলিশ অফিসার বাবুল আক্তার এই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছেন, তার স্ত্রীকে কী নির্মমভাবে কুপিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হলো। ছোট্ট শিশুর সামনে এ হত্যা করা হয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, পুলিশের কাজ আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করা, অপরাধীদের ধরা। বাংলাদেশে নানা ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড যারা করেছে, তাদের গ্রেপ্তার করছে পুলিশ। এসব ঘটনায় জড়িতরাই এ ধরনের ন্যাক্কারজনক হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে।

তিনি বলেন, সম্প্রতি যেসব গুপ্ত হত্যা হচ্ছে তার সবগুলোর প্যার্টান একই রকম। তার ঠিক একই জায়গায় কোপ দেয়, একই ভাবে গুলি করে মারে। একই কায়দায় এসব ঘটনা ঘটানো হচ্ছে।

‘এরই মধ্যে জড়িতদের অনেককে আমরা গ্রেপ্তার করেছি। এখানে যারা ঘটনা ঘটিয়েছে অবশ্যই তারা গ্রেফতার হবে। এতে কোনো সন্দেহ নাই। আমার একটি কথা হলো আজকে তারা পরিবারে উপর হাত দিয়েছে।

মতামত