টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাউজানে এরশাদ

এস.এম. ইউসুফ উদ্দিন
রাউজান প্রতিনিধি

Raozan-ersadচট্টগ্রাম, ০৫  জুন (সিটিজি টাইমস):  চট্টগ্রামের রাউজান ঘুরে গেলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি, সাবেক সেনা প্রধান ও বর্তমান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলুর আমন্ত্রনে শনিবার রাতে তার রাউজানস্থ গ্রামের বাড়ি কদলপুরে আসেন এরশাদ। রাত পৌনে ৯টার দিকে চট্টগ্রাম নগরী থেকে নেতাকর্মিদের বিশাল একটি গাড়ি বহর আর পুলিশী নিরাপত্তা নিয়ে কদলপুরের জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলু এমপির পৌঁছান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। বাড়ির মূল ফটকে দীর্ঘক্ষণ ধরে অপেক্ষামান এলাকার এবং বিভিন্নস্থান থেকে আগত নেতাকর্মি ও মুরব্বিরা এরশাদকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করেন। এসময় বাড়ির সামনে মাঠে বিশাল লাল গালিচার দুইপাশ জুড়ে ছিল শিশুদের ফুল নিয়ে অপেক্ষা। তারা ফুল বৃষ্টিতে বরণ করে নেন আগত বরণ্য অতিথিকে। উৎসুক নেতাকর্মি ও আগত এলাকাবাসীর ভীড় টেলে সাদর অভ্যর্থনায় জিয়াউদ্দিন বাবুলর নবনির্মিত সুজ্জিত বাড়িটিতে ঢোকেন সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ। এরপর তিনি বেশ কিছুক্ষণ ঘরে রেস্ট নেন। দুই ঘন্টা অবস্থান করার পর রাতের খাবার সেরে তিনি রাত পৌনে দশটায় চট্টগ্রাম নগরীর উদ্যোশে রওনা হন। এরআগে তিনি এলাকা ও বিভিন্নস্থান থেকে আসা বিভিন্ন বয়সী নেতাকর্মি ও সাধারন মানুষের সাথে কুশল বিনিময় করেন। এসময় এলাকার বিভিন্নস্থরের পক্ষ থেকে তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় সাংবাদিকরা দেশের বিভিন্ন পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে চাইলে হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ শারীরিকভাবে ক্লান্ত বলে কথা বলতে রাজী হননি। এব্যাপারে জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলু বলেন সাবেক একজন রাষ্ট্রপতিকে আমার বাড়িতে আনতে পেরে আমি ধন্য, রাউজানবাসী ধন্য। এটি একটি স্মরণীয় দিন আমাদের জন্যে।’

জাপা নেতা ও সাবেক সুলতানপুর ইউপি চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আকবর বলেন ‘বর্তমান জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের রাউজান আগমন রাউজাবাসীর বড় একটি আনন্দের বিষয়। তাকে দেখার জন্যে দুপুর থেকেই এলাকার লোকজন অধীর অপেক্ষায় ছিলেন।’ এদিকে এরশাদের কদলপুর আগমন উপলক্ষে হাফেজ বজলুর রহমান সড়কস্থ নক্্রবন্দীর মাজার গেইট থেকে জিয়াউদ্দিন আহমদ বাবলুর বাড়ি পর্যন্ত প্রায় আধা কিলোমিটার জুড়ে ব্যাপক আলোকসজ্জা করা হয়। অতিথিদের জন্যে খাবারও তৈরী করা হয়। হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মেজর মো. খালেদ, সাবেক সংসদ সদস্য এম সিরাজুল ইসলাম, সাবেক এমপি এম নজরুল ইসলাম, জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়, ভাইস চেয়ারম্যান মোরশেদ মুরাদ ইব্রাহিম, প্রেসিডিয়াম সদস্য সোলায়মান শেঠ, রাউজান উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা কুলপ্রদীপ চাকমা, চট্টগ্রাম’র সেক্রেটারীর ইয়াকুব হোসেন, মহানগর নেতা নিজাম উদ্দিন জেকী, চট্টগ্রাম উত্তর জেলার সভাপতি শফিকুল আলম চৌধুরী, সিনিয়র সহ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান মেজবাহ উদ্দিন আকবর, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামীম আহমদ, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, জাহেদুল আলম, বাচ্ছু, শেখ আবদুল কাদের, এডভোকেট সাহাবুদ্দীন, লায়ন মহিনউদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, সেলিম উদ্দিন, তছলিম উদ্দিন প্রমূখ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত