টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

‘মাহমুদা আক্তার ছিলেন নিরহংকারী’

bচট্টগ্রাম, ০৫  জুন (সিটিজি টাইমস): চট্টগ্রামে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা আক্তার মিতু ছিলেন সদা হাস্যজ্জল ও নিরহংকারী। স্বামীর সাথে গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসলে সবার সাথে হাসিমুখে কথা বলতেন। তার মনে কোন অহংকার ছিল না।

মাহমুদা আক্তার মিতু সম্পর্কে বাবুল আক্তারের চাচাতো ভাই এমদাদুল মিয়া এ ভাবেই বর্ণনা করেন।

পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের বাড়ি ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার মদনগোপালপুর গ্রামে। তার বাবার নাম আব্দুল ওয়াদুদ। তিনি পুলিশের অবসরপ্রাপ্ত উপ-পরিদর্শক। বর্তমান মাগুরা শহরের কাউন্সিলপাড়ায় বসবাস করেন। চাচাতো ভাই এমদাদুল মিয়া আরো জানান, ঈদে বা বিশেষ দিনে চাচা, চাচিসহ বাবুল আক্তার স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে গ্রামে আসতেন। এ সময় গ্রামের বাড়িটি আনন্দে ভরে উঠতো।

বাবুল আক্তারের বৃদ্ধ চাচা আব্দুল গফুর জানান, ভাইয়েরা পৃথক হলেও গ্রামের বাড়িতে তারা বেড়াতে আসলে সবাই একান্নবর্তী পরিবারের মতো বসবাস করেন। বউমা মাহমুদা আক্তার মিতু ভাল মনের মানুষ ছিলেন বলেও চাচা শ্বশুর আব্দুল গফুর জানান।

এদিকে নিহত মাহমুদা আক্তার মিতুর খালাতো ভাই আমিরুল ইসলাম জানান, লাশ শৈলকুপা উপজেলার মদনগোপালপুর গ্রামে দাফনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

ঢাকায় মিতুর বাবার বাসা থেকে ঝিনাইদহে নিয়ে যাওয়া হবে। চট্টগ্রাম নগর পুলিশের উপ কমিশনার (উত্তর) পরিতোষ ঘোষ জানিয়েছেন, মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে ঝিনাইদহে। সেখানে বাবুল আক্তারের গ্রামের বাড়িতে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে মাহমুদাকে দাফন করা হবে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত