টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাঙ্গুনিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় ১ গুলিবিদ্ধসহ আহত ৩

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি 

চট্টগ্রাম, ২৮  মে (সিটিজি টাইমস)::  চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার ১২ ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন দুয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (২৮ মে) সকালে পোমরা ও পারুয়া ইউনিয়নে প্রার্থী ও সমর্থকদের মাঝে গুলাগুলি ও ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটেছে। ছুরিকাঘাতে ও গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত ২ জনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল ১০টায় পারুয়া ইউনিয়নের জঙ্গল পারুয়া গ্রামে দুই মেম্বার প্রার্থীর মাঝে সংঘর্ষে ২ জন আহত হয়। ৬নং ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী মোঃ মুছা ও জাকির হোসেনের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে প্রার্থী মোঃ মুছার সমর্থক মো. জাসেদ (২২)-কে ছুরিকাঘাতে মারাত্মক আহত হন। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংঘর্ষে মেম্বার প্রার্থী জাকির হোসেন ইটের আঘাতে আহত হলে তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এ কেন্দ্রে ৩০ মিনিট ভোট বন্ধ থাকলেও পরে আবার ভোট গ্রহণ করা হয়।

এদিকে পোমরা ইউনিয়নের পোমরা এসআরএস সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বাইরে গুলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। বিএনপি প্রার্থীর সমর্থকরা এ সময় ১০ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়লেও কেউ হতাহত হয়নি।

সকাল সাড়ে ৯টায় পোমরা ইউনিয়নের পোমরা বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় পুরুষ ও মহিলা ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। এ কেন্দ্রে স্ক্র্যাচে ভর করে ভোট দিতে এসেছেন ৮২ বছরের বৃদ্ধা আনোয়ার খাতুন তিনি নিজের আগ্রহে ভোট দিতে পেরে আনন্দবোধ করছেন বলে জানান।

পৌণে ১০টায় একই ইউনিয়নের রোসাইপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় মহিলা ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। এ সময় সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণের পরিবেশ দেখা যায়।

১০টা ৪০ মিনিটে সরফভাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গিয়ে দেখা যায় কেন্দ্রের বারান্দায় ঠাঁসাঠাঁসি মহিলা ও পুরুষদের লাইন। ভোটার অনুযায়ী কেন্দ্রে ছোট হওয়ায় অনেক ভোটার ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়। এসময় ২০০৬ ভোটারদের মধ্যে ৫টি বুথে ৭০০ ভোট গ্রহন হয় বলে জানান প্রিসাইডিং অফিসার নুুরুল হুদা। এ কেন্দ্রে নৌকা প্রতীকের এজেন্ট ছাড়া অন্য কোনো প্রার্থীর এজেন্ট দেখা যায়নি।

সাড়ে ১২ টায় লালা নগর ইউনিয়নের উত্তর রাঙ্গুনিয়া কলেজ কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় পুরুষ ও মহিলা ভোটারদের কোনো লাইন নেই। ভোটারবিহীন ভোট কেন্দ্রের বুথ ছিল ফাঁকা।

দুপুর ১ টায় ইসলামপুর ইউনিয়নের ইসলামপুর উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রের ১ নম্বর মহিলা বুথে গিয়ে দেখা যায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর ব্যালট পেপারে নৌকা প্রতীকে সীল মারা। ২ নম্বর কক্ষেও গিয়ে দেখা যায় একই অবস্থা। এ কক্ষের সহকারি প্রিসাইডিং অফিসার এ ব্যাপারে সদুত্তর দিতে পারেনি।

জানতে চাইলে এ কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার শান্তি জ্যোতি বড়ুয়া জানান, এ ব্যাপারে আমাকে কেউ জানায়নি।

পোমরা ইউনিয়নের ছাইনী পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বিকাল সাড়ে ৪ টায় ভোট গননার সময় দুই মেম্বার প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষে ১ জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। ২ নং ওয়ার্ডে আহমদ কবির ও মহিউদ্দিনের সমর্থকের মধ্যে সংঘর্ষে মহিউদ্দিনের সমর্থক ইউনুস খাঁন(২৪) গুলিবিদ্ধ হয়। তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাঙ্গুনিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। এলাকার পরিবেশ শান্ত রয়েছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত