টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নির্বাচনী সহিংসতা: মিরসরাইয়ে হামলায় আহত ১০ , চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়ি লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ

এম মাঈন উদ্দিন
মিরসরাই প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ২৬ মে (সিটিজি টাইমস):: চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে আগামী ৪ জুন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহিংসতায় অন্তত ১০জন আহত হয়েছে। এসময় বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়ি লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করেছে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন। বৃহস্পতিবার (২৬) সন্ধ্যায় উপজেলার ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের হাদিফকিরহাট, নিজামপুর কলেজ, কানুনগোরহাট ও মাইজগাঁও গ্রামে এসব ঘটনা ঘটে। হামলায় আহতরা হলেন ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার কামাল উদ্দিন, বিএনপি নেতা আবদুর রহিম ভেন্ডর, বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী সালাহ উদ্দিনের সেলিমের ভাতিজা স্বাধীন, যুবদল কর্মী সাইফুল ইসলাম ও আওয়ামীলীগ কর্মী ব্যবসায়ী মোসলেম উদ্দিন শাহিন সহ ১০জন।

উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক শাহীদুল ইসলাম চৌধুরী অভিযোগ করেন, ৪জুন ওয়াহেদপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে তান্ডব চালিয়েছে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজলুল কবির ফিরোজের লোকজন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ২০-৩০টি মোটর সাইকেল ও ১টি হাইচ গাড়ি নিয়ে ৪০-৫০জন ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতাকর্মী অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে ইউনিয়নজুড়ে মহড়া দেয়। এসময় তাদের হামলায় বিএনপি যুবদল ছাত্রদলের ১০জন নেতা-কর্মী আহত হয়। তারা বিএনপি নেতা, কর্মী সমর্থকদের প্রচার-প্রচারনা থেকে বিরত থাকতে ও ভোটকেন্দ্রে না যেতে হুমকি দেয়। তিনি এসব হামলার তীব্র নিন্দা জানান।

বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন সেলিম বলেন, আওয়ামীলীগগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফিরোজের লোকজন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আমার বাড়ির সামনে এসে বাড়ি লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ ও ককটেল নিক্ষেপ করেন। এসময় আমার ভাতিজা স্বাধীনের মুখে পিস্তল ঢুকিয়ে হত্যার চেষ্টা করে এবং তাকে মারধর করে পানিতে ফেলে দেয়। এছাড়া নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াতে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। বর্তমানে আমি এবং আমার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। আমি প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠ নির্বাচনের জন্য জোর দাবী জানাচ্ছি।

নিজামপুর বাজারের ব্যবসায়ী ও আওয়ামীলীগ কর্মী মোসলেম উদ্দিন শাহীন বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ৩০-৪০ জনের একটি সন্ত্রাসী গ্রæপ আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে আমাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে। এসময় আমার কপালে পিস্তল ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দেয়।

এ বিষয়ে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী ফজলুল কবির ফিরোজ বলেন, নির্বাচনের সুষ্ঠ পরিবেশ নষ্ট করতে একটি কুচক্রি মহল এগুলো করছে। আমি এবং আমার কোন কর্মী এসব ঘটনায় জড়িত নয়।

প্রসঙ্গত, আগামী ৪ জুন উপজেলার ১৫ নম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নে শুধুমাত্র চেয়ারম্যান পদে নৌকা-ধানের শীষ প্রতিকের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বিনাপ্রতিদ্ব›িদ্বতায় ১২জন সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

 

মতামত