টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রোয়ানু’র আঘাতে লণ্ডভণ্ড চট্টগ্রাম

ছবিঃ অনুপম বড়ুয়া

ছবিঃ অনুপম বড়ুয়া

চট্টগ্রাম, ২১ মে (সিটিজি টাইমস)::  বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার গতির বাতাসের শক্তি নিয়ে চট্টগ্রাম উপকূলে আঘাত হেনেছে।

আজ দুপুরে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু চট্টগ্রাম উপকূলের সন্দ্বীপ, হাতিয়া, কুতুবদিয়া, সীতাকুণ্ডু, ফেনী ও আনোয়ারায় রায়পুর ও জুঁইদণ্ডি ইউনিয়ন লণ্ডভণ্ড করে দিয়ে যায়।

রোয়ানু আঘাত হানায় চট্টগ্রাম নগরের সর্বত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নগরের বাদশা মিয়া সড়ক, রৌফাবাদ, বারেক বিল্ডিং মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় গাছ ও ডাল উপড়ে পড়েছে রাস্তার ওপর। এতে বাদশা মিয়া সড়কের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। অনেকে ঘরবন্দী অবস্থায় রয়েছেন।

আনোয়ারায় রায়পুর ও জুঁইদণ্ডি ইউনিয়ন বেরিবাধ ভেঙে প্লাবিত হয়েছে। বাঁশখালিতে বেড়িবাঁধ ভেঙে বিলীন হয়ে গেছে কয়েকশ’ ঘর-বাড়ি।

নগরের পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত এলাকার ঝিনুক মার্কেটের নিচের অংশের দোকানপাট পানিতে ভেসে গেছে। প্রচণ্ড বাতাসে ঘরের চালা ঘুড়ির মতো উড়ছে।

বহির্নোঙরে থাকা একটি জাহাজ ঢেউ ও বাতাসের তোড়ে উপকূলের কাছাকাছি চলে এসেছে। এদিকে পিডিবি চট্টগ্রাম নগরের স্টেডিয়াম এলাকার নির্বাহী প্রকৌশলী অশোক চৌধুরী জানান, নগরীর জনগণের নিরাপত্তার কথা ভেবে বেলা সাড়ে ১০টা থেকে সর্বত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

দুর্বল হয়ে উপকূল অতিক্রম করছে রোয়ানু

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু কক্সবাজার উপকূল অতিক্রম করেছে। আবহাওয়া অফিস জানায়, সন্ধ্যায় ৬টায় এটি হাতিয়া, সন্দ্বীপ, কুতুবদিয়া ও মেঘনা উপকূল অতিক্রম করবে।

এছাড়া আরো ছয়ঘণ্টা ঝড়ো হাওয়া থাকবে।

ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্রের ৫২ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৬২ কিলোমিটার।

দুর্যোগ ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জেল হোসেন চৌধুরী মায়া জানিয়েছেন, রোয়ানু দুর্বল হয়ে পড়েছে। তবে প্রাণহানি এড়াতে উপকূলীয় এলাকা থেকে সাড়ে ৫ লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

রোয়ানুর ফলে সারাদেশে ছয়জনের মুত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও মঙলা সমুদ্রবন্দরকে ৭ নম্বর এবং পায়রা বন্দরকে ৬ নম্বর বিপদসঙ্কেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

রোয়ানুর প্রভাবে ৪-৫ ফুট জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছে।

মতামত