টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সীতাকুণ্ডে ইকোপার্ক থেকে উদ্ধার হওয়া সেই লাশ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ১৬ মে (সিটিজি টাইমস)::  সীতাকুণ্ডের বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকোপার্ক থেকে উদ্ধার হওয়া তরুণীর লাশের পরিচয় মিলেছে। তাঁর নাম মুন্নি আক্তার (২২)।

পুলিশ জানিয়েছে, মুন্নি চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্বিতীয় বর্ষে পড়তেন।

পুলিশ গত শনিবার বোটানিক্যাল গার্ডেন ও ইকোপার্ক থেকে ক্ষতবিক্ষত ওই লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় মামলাও করে পুলিশ।

মামলার বাদী সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সুজয় কুমার মজুমদার নিহত ছাত্রীর পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, গত শুক্রবার সকাল নয়টার কিছুক্ষণ আগে মুন্নি তাঁর খালার বাসা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশে রওনা হন। পরে আর ফেরেননি।

এসআই সুজয় বলেন, প্রেমঘটিত কারণে মুন্নি খুন হয়ে থাকতে পারেন।

তিনি জানান, মুন্নি চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার গবিন্দখালী গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে। চট্টগ্রাম নগরের বাকলিয়া এলাকায় তাঁর এক খালার বাসায় থেকে পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি নামের একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে দ্বিতীয় বর্ষে পড়তেন।

এসআই সুজন জানান, পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) কামাল উদ্দীন বলেন, তিনি বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন করে জানতে পারেন, ঘটনার দিন দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মুন্নি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসেই ছিলেন। পরে ক্যাম্পাস থেকে বের হয়ে যান।

মুন্নির প্রেমঘটিত বিষয় এবং তাঁর পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশীর জমি নিয়ে বিরোধ—এ দুটি বিষয় সামনে রেখে তদন্ত চলছে।

তবে এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি।

মতামত