টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ক্ষুব্ধ মেয়র

cccচট্টগ্রাম, ০৯ মে (সিটিজি টাইমস):   নগরীর দক্ষিণ বাকলিয়া ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিন পর্যবেক্ষনে গিয়ে বর্জে ভরাট খাল-নালা ও দীর্ঘদিন ধরে সড়কের অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এসময় তিনি তাৎক্ষণিক ভাবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন।

সোমবার চাক্তাই খাল ও চাক্তাই খালের শাখা খাল, নালা-নর্দমা, নির্মাণাধীন মিয়া খান সড়ক, তন্বিয়া সেতু ও নিচের খাল, নেয়ামত আলী সেতুর নিচের নালা, বাদির টেক, বউ বাজার, আবু জহুর রোড, ইসহাকের পুল ও পুলের নিচের খাল, ইসমাঈল ফয়েজী সড়ক, জামাই বাজার, তুলাতুলী সরেজমিন পরিদর্শন করেন মেয়র।

এসময় মেয়র বলেন, ‘জোয়ারের পানি প্রবেশের কারণে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা নিরসনে খালের প্রবেশ মুখে পাম্প হাউসসহ স্লুইসগেট নির্মাণের পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে। অপর দিকে জলাবদ্ধতার আরেক কারণ হলো ময়লা-আবর্জনা ও মাটি ফেলে খাল-নালা-নর্দমা ভরাট করা। নগরবাসীর মধ্যে কেউ কেউ স্বজ্ঞানে এবং সচেতনতার সাথে খাল, নালায় ও যত্রতত্র আবর্জনা ফেলে ভরাট করে পানি নিষ্কাশনের পথ রুদ্ধ করে দিচ্ছে।’

মেয়র এডিপির অর্থায়নে ৬১ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন মিয়া খান সড়কের উন্নয়নকাজ দীর্ঘদিন যাবত অবহেলিত থাকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং তাৎক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার ও প্রকল্প পরিচালককে উন্নয়নকাজ দ্রুত শেষ করার নির্দেশ দেন।

মেয়র খাল-নালা ভরাট দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং ভরাট নালা ও খালের মাটি, আবর্জনা অপসারণে কার্যকর উদ্যোগ নিতে প্রধান প্রকৌশলীকে তাৎক্ষণিক নির্দেশ দেন। আসন্ন বর্ষা মৌসুমের আগেই খাল, নালা-নর্দমাগুলো থেকে ময়লা-আবর্জনা ও মাটি অপসারণে কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়নে মেয়র দায়িত্বশীলদেরও নির্দেশনা দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় কাউন্সিলর ইয়াছিন চৌধুরী আশু, করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্নেল মহিউদ্দিন আহমদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আনোয়ার হোছাইন, বাকলিয়া থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিদ্দিক আহমদ, ১৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আজিম নুরু, মহিউদ্দিন মহিম, গোলাম রাব্বানী মণি, ইফতেখার আলম জাহেদ, শফিউল আলম, এসএম কামাল উদ্দিন, ইসমাইল কোম্পানী, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জামশেদ শাহ, মনিরুল ইসলাম, আবু মোরশেদ, বাকলিয়া থান ছাত্রলীগের সভাপতি এনকে আলম সাজ্জাদ, জাবেদ হোসেন, শ্রমিকলীগ সাধারণ সম্পাদক লিটন বাবু প্রমুখ।

মতামত