টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সেনা অভিযানে রাঙ্গুনিয়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী আটক : বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

Ranguniaচট্টগ্রাম, ০৪ মে (সিটিজি টাইমস)::  সেনাবাহিনীর বিশেষ অভিযানে রাঙ্গুনিয়ার উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নের পেয়ার মোহাম্মদ চৌধুরী বাড়ির ফুলতলি এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে শীর্ষ সন্ত্রাসী বখতেয়ার বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড মোদাচ্ছেরকে আটক করা হয়েছে। এ সময় তার কাছ থেকে ৫৫ রাউন্ড তাজা গুলিসহ তিনটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে সেনাবাহিনী। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার(৪ মে) ভোররাতে অভিযানটি পরিচালিত হয় বলে জানায় সেনাসূত্র।

সূত্র জানায়, আটকের পর তার স্বীকারোক্তিতে মোদাচ্ছেরের কাছ থেকে একটি বিদেশী শার্টারগান, একটি শর্টগান ও একটি এলজিসহ ৫৫ রাউন্ড তাজাগুলি উদ্ধার করেন সেনাবাহিনীর রাঙ্গামাটির ১৬ বীরের সদস্যরা।

রাঙামাটি রিজিয়নের ১৬ বীরের সদর জোন কমান্ডার লেপ্টেনেন্ট কর্ণেল সামস এর নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। আটককৃত মোদাচ্ছের রানীরহাট এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী বখতেয়ার বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড এবং অস্ত্র রাখার ষ্টোর কিপার হিসেবে পরিচিত বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী।
সেনাবাহিনীর রাঙ্গামাটি সদর জোনের ১৬ বীর জানায়, পাহাড়ি এলাকায় অস্ত্রের মজুদ করছে এবং বেপরোয়াভাবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করছে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গভীর রাতে সেনাবাহিনী অভিযানে নামে। অভিযানের এক পর্যায়ে ভোরের দিকে ওই এলাকার একটি তিন তলা বিল্ডিংয়ের দেয়াল বেয়ে ওপরে ওঠেন ১৬ বীরের সদর জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল সামস। এতে হাতেনাতে ধরে ফেলেন মোদাচ্ছেরকে।

সূত্র জানায়, পরে মোদাচ্ছেরের স্বীকারোক্তি মূলে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তিনটি অত্যাধুনিক অস্ত্রসহ বিভিন্ন অস্ত্রের মোট ৫৫ রাউন্ড তাজাগুলি উদ্ধার করা হয়। এসময় তার বাড়ির ছাদে প্রচুর পরিমাণে বিদেশী মদের বোতল ও বিয়ারের খালি ক্যান পড়ে থাকতে দেখা যায়। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাঙ্গুনিয়া থানা পুলিশে মোদাচ্ছেরকে হস্তান্তর করা হয় বলে জানায় সেনাসূত্রটি।

এদিকে অপর এক সূত্রের দেয়া তথ্য মতে, আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জেলায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বাড়ছে। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে পরিস্থিতি সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অপারেশন উত্তরণের আওতায় এবার মাঠে নামল সেনাবাহিনী। রাঙ্গামাটি সদর সেনা জোনের কমান্ডার লেফেটেন্যান্ট কর্নেল সামসের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানের প্রথম দিনেই এক শীর্ষ সন্ত্রাসীকে আটকের পাশাপাশি উদ্ধার করা হয়েছে আমেরিকার তৈরি একটি শর্টগান ও একটি এলজি এবং তুরস্কের তৈরি একটি শার্টার গানসহ অস্ত্রগোলা উদ্ধারে এলাকায় স্বস্তি এসেছে বলে জানায় সেনাসূত্র।

সেনাবাহিনীর দায়িত্বশীল সূত্র জানিয়েছে, আটককৃত মোদাচ্ছের ও তার গডফাদার পলাতক শীর্ষ সন্ত্রাসী বখতেয়ারের নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে রাঙ্গুনিয়ার কয়েকটি এলাকাসহ রানীরহাট, গাবতল, ইসলামপুর, রাজানগর, বগাবিলি এলাকায় প্রতিদিন চাঁদাবাজিসহ নানা ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে। তাদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ স্থানীয় জনসাধারণ। ইসলামপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি মোদাচ্ছের একই ইউনিয়নের পেয়ার মোহাম্মদ চৌধুরী বাড়ির এজলাশ মিয়ার পুত্র ।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত