টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

বদলে যাবে পাসপোর্টের ধরন

epassportচট্টগ্রাম, ০৩ মে (সিটিজি টাইমস)::   যন্ত্রে পাঠযোগ্য পাসপোর্টের (মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট- এমআরপি) পাশাপাশি দেশে চালু হতে যাচ্ছে ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট (ই-পাসপোর্ট)। বয়সভেদে পাঁচ ও দশ বছরমেয়াদি ই-পাসপোর্ট দেয়া হবে। এই পাসপোর্ট নিতে খরচ হবে ভ্যাটসহ ছয় হাজার ৩২৫ টাকা; তবে জরুরি পাসপোর্টের জন্য পড়বে ১২ হাজার ৬৫০ টাকা।

পাসপোর্ট অধিদপ্তরের সূত্রমতে, ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম তদারক করবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। কার্যক্রম শুরু করতে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের অপেক্ষা করছে মন্ত্রণালয়।

ই-পাসপোর্টের সুবিধা সম্পর্কে জানা যায়, এর পাতায় সংরক্ষিত চিপস-এ থাকা পাসপোর্টধারীর চোখের মণির ছবি ও আঙুলের ছাপসহ নিরাপত্তা চিহ্ন থেকেই পাসপোর্টধারীর সব তথ্য যাচাই করা যাবে। ফলে পরিচয় গোপন করা যেমন কঠিন হবে, তেমনি বিদেশ পরিভ্রমণেও ভোগান্তি কমবে।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সভাপতিত্বে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে পাসপোর্ট-সংক্রান্ত এক বৈঠকে ই-পাসপোর্ট চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বিষয়টি পর্যালোচনা করে এ-সংক্রান্ত প্রস্তাব তৈরি করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিনকে আহ্বায়ক করে একটি কমিটি করা হয়। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বৈঠক করে ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছিল কমিটিকে।

কমিটি বলেছে, ই-পাসপোর্ট প্রবর্তনের জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসে যে অবকাঠামো থাকা প্রয়োজন, তা সেখানে রয়েছে এমআরপি বাস্তবায়নের ফলে। তবে ই-বুকলেট, পারসোনালাইজেশন মেশিন ক্রয়, এমআরপি সিস্টেমের সঙ্গে সংযোগ, সব ইমিগ্রেশন চেক পয়েন্টে ই-পাসপোর্ট পাঠযোগ্য করার ব্যবস্থা ও ই-গেট করতে হবে।

সূত্রমতে, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠানো প্রস্তাবে বলা হয়েছে, বর্তমানে বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে এমআরপির পাশাপাশি ই-পাসপোর্ট চালু আছে। ই-পাসপোর্ট এমআরপির চেয়ে আরও নিরাপদ। বেশির ভাগ দেশে ই-পাসপোর্ট ইস্যু করার কারণেই পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন উপযোগী অবকাঠামো স্থাপন করা হয়েছে। ফলে ইমিগ্রেশনে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা এ-সংক্রান্ত কাজ সহজে করতে পারছেন এবং তথ্য থাকছে আরও বেশি নিরাপদ। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডাসহ প্রায় ১১৮টি দেশে ই-পাসপোর্ট চালু আছে বলে প্রস্তাবে জানানো হয়।

২৫ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীও ই-পাসপোর্ট চালুর ঘোষণা দেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাসপোর্ট শাখার দায়িত্বে থাকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব এ কে এম মুখলেছুর রহমান বলেন, ই-পাসপোর্ট চালুর নীতিগত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর কার্যক্রম চলছে।

কবে নাগাদ ই-পাসপোর্ট চালু হতে পারে, এমন প্রশ্নের জবাবে মুখলেছুর রহমান বলেন, “এটি এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে আছে। নির্দিষ্ট করে সময় বলা যাচ্ছে না।”- ঢাকাটাইমস

মতামত