টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

সাতকানিয়ায় আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

শহীদ ইসলাম বাবর
দক্ষিন চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

চট্টগ্রাম, ২৬ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস) ::৫ম ধাপে আগামী ৪ জুন অনুষ্ঠিতব্য সাতকানিয়ার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে চলছে অভিযোগ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ। পক্ষে বিপক্ষে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন করছে তারা। এনিয়ে একাধিক ইউনিয়নে কর্মী সমর্থকদের মাঝে সৃষ্টি হচ্ছে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি। এছাড়াও উপজেলা ও জেলা আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য মনোনীত প্রার্থীদের বিরুদ্ধে দলের কেন্দ্রীয় কার্যলয়ে অভিযোগও দিচ্ছে কেউ কেউ।

মনোনয়ন নিশ্চিত হওয়ার সময়ে প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উঠায় অস্তিরতা দেখা দিয়েছে নেতাকর্মীদের মাঝে। পাল্টাপাল্টি অভিযোগ, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, দলের হাই কমান্ডের নির্দেশনা মেনেই প্রার্থী তালিকা তৈরী করা হয়েছে। এখানে অভিযোগ কিংবা পাল্টা অভিযোগের কোন সুযোগ নেই।

সূত্রে প্রকাশ, উপজেলার ১১ নং কালিয়াইশ ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক হাফেজ আহমদকে মুক্তিযোদ্ধা কোটায় নৌকা প্রতীক বরাদ্ধ দেওয়ার সংবাদ স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়। এর সূত্র ধরে হাফেজ আহমদকে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা আখ্যায়িত করে সাতকানিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যেগে সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদের সামনে গত ১৮ এপ্রিল একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এতে নেতৃত্ব দেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু তাহের এলএমজি। এ বিষয়ে আবু তাহের এলএমজি বলেন, হাফেজ আহমদ মুক্তিযোদ্ধা নয়, সে ভূয়া মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় তাকে মুক্তিযোদ্ধের প্রতীক,বঙ্গবন্ধুর প্রতীক নৌকা না দেওয়ার জন্য আমি মানববন্ধন ছাড়াও আমি ব্যাক্তিগত ভাবে আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতাদের সাথে দেখা করেছি। একই সাথে ১২ নং ধর্মপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা সম্পাদক মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরীকে রাজাকার পুত্র আখ্যায়িত করে তাকেও মনোনয়ন না দেওয়ার দাবী জানান তিনি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে হাফেজ আহমদ বলেন, এলএমজি আবু তাহের একজন এলডিপি নেতা, তিনি ২০০৮ সালে এলডিপির সভাপতি কর্ণেল (অবঃ) অলি অহমদের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ছিলেন। কালিয়াইশ ইউনিয়নে এলডিপির প্রার্থীকে বিজয়ী করার কৌশল হিসেবেই তিনি আমার বিরুদ্ধে নানা ভাবে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রকৃত পক্ষে এসবের কোন ভিত্তি নেই। এলএমজি তাহেরের অভিযোগ প্রসঙ্গে কালিয়াইশ ইউপি চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইলিয়াছ চৌধুরী বলেন, কালিয়াইশ ইউনিয়নে মুসলিমের চাইতে হিন্দুর সংখ্যা বেশী। এ ইউনিয়নে স্বাধীনতার পরবর্তি সময়ে আমার বাবা টানা তিন বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। যিনি অভিযোগ করছেন (আবু তাহের এলএমজি) তার কোন ভিত্তি নেই, নেই কোন গ্রহণ যোগ্যতা। তিনি সাতকানিয়ার বাসিন্দাও নন।

অপরদিকে সাতকানিয়া সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নেজাম উদ্দিনের বিপক্ষে গত ২৩ এপ্রিল সংবাদ সম্মেলন করে তাকে দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ার জন্য দলের হাই কমান্ডের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন একটি পক্ষ। সংবাদ সম্মেলনে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ সম্মেলনের প্রতিবাদে নেজাম উদ্দিনের সমর্থকেরা গতকাল সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ করে। এহেন পরিস্থিতিতে আসন্ন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীদের কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

মতামত