টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

স্টিফেন মানবের কল্যাণে কাজ করেছেন বলেই আজীবন বেঁচে থাকবেন: শোক সভায় দীপংকর

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

Rangunia-shok-picচট্টগ্রাম, ১৯  এপ্রিল (সিটিজি টাইমস) : মানুষ বেঁচে থাকে তার কর্মের কারনে। কিছু মানুষ পৃথিবীতে আসে নিজের তরে নয় পরের তরে। অন্ধকার পথকে আলোর পথ দেখায় এসব মানুষ। এসব মানুষের সৃষ্টির কারনে তারা বেঁচে থাকেন আজীবন মানুষের হৃদয়ে। এক সময় এ এলাকায় চিকিৎসা সেবার কোনো চিহ্ন ছিলনা। ডা. এস এম চৌধুরী একাই সাহস করে শতবর্ষী খ্রীষ্টিয়ান হাসপাতাল ও কুষ্ঠ চিকিৎসা কেন্দ্র গড়ে তুলেছেন। আর সেই হাসপাতালকে দেশের মধ্যে আধুনিক হাসপাতালে গড়তে সক্ষম হয়েছে ডা. মং স্টিফেন চৌধুরী।এই দুই ক্ষনজন্মা কীর্তি পুুরুষ না হলেও পার্বত্য অঞ্চল ও রাঙ্গুনিয়া এলাকায় চিকিৎসা সেবা অনিশ্চিত ছিল। সেবার মহান ব্রত নিয়ে মং স্টিফেন চৌধুরী আজীবন মানব কল্যানে কাজ করেছেন। তার বলিষ্ঠ কর্মকান্ডের কারনে চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান ও কুষ্ঠ হাসপাতাল ভবিষ্যত পথ চলা সহজ হবে। তিনি না থাকলেও তার কর্মময় জীবন এতদ অঞ্চলের মানুষ আজীবন মনে রাখবে। মানুষ মরনশীল সে কথাই সকলকে মনে রাখতে হবে। যেটুকু কর্মময় জীবনে সুযোগ থাকে মানব সেবার কল্যানে কাজ করতে হবে

এতদ্ অঞ্চলের অবহেলিতদের চিকিৎসা সেবার পথ প্রদর্শক ছিলেন ডা. এস এম চৌধুরী ও মং স্টিফেন চৌধুরী। তাদের অবদানের কথা এই এলাকার মানুষের মন থেকে সহজে মোছা যাবে না। তারা বেঁচে থাকবে দুখী মানুষের মাঝে অনন্তকাল। মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) চন্দ্রঘোনা খ্রীষ্টিয়ান হাসপাতাল ও কুষ্ঠ চিকিৎসা কেন্দ্রের প্রয়াত পরিচালক ডা. মং স্টিফেন চৌধুরীর নাগকি শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সাবেক পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার এসব কথা বলেন।

রাঙ্গুনিয়া-কাপ্তাই নাগরিক শোক সভা কমিটির আয়োজনে হাসপাতাল প্রাঙ্গনে শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আহমদুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন বানৌজা শহীদ মোয়াজ্জম ঘাঁটির কমান্ডিং অফিসার ক্যাপ্টেন এস এম এম জামান, সাংবাদিক মাসুদ নাসিরের সঞ্চালনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নাগরিক শোক সভা কমিটির আহবায়ক ইলিয়াছ কাঞ্চন চৌধুরী, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অংসুছাইন চৌধুরী, কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, হাসপাতালের পরিচালক(ভারপ্রাপ্ত) ডা. রনজিত চাকমা, চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউপি চেয়ারম্যান ইদ্রিছ আজগর, প্রয়াত ডা. মং স্টিফেন চৌধুরীর সহধর্মীনি শম্পা চৌধুরী। শোক সভায় উপস্থিত ছিলেন রাঙ্গামাটি জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রবার্ট রোনাল্ড পিন্টু, বনশ্রী পর্যটন কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা পরচিালক প্রকৌশলী রুবায়েত আক্তার আহমেদ, কাপ্তাই উপজলো আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবী, কাপ্তাই উপজেলা যুবদলের সভাপতি মো. জাকির হোসেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু মেম্বার, রাজনৈতিক এনায়েতুর রহিম, কাপ্তাই মানবাধিকা কমিশনের মহিলা সম্পাদিকা নুর বেগম মিতা, কাপ্তাই প্রেস ক্লাবের সভাপতি কাজী মোশাররফ হোসেন অন্যান্য গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। অনুষ্ঠানের শুরুতে ঝুলন দত্তের সহযোগিতায় শোক সঙ্গীত পরিবেশন করনে শিল্পী তাজরিবা আলম স্বর্ণালী। মানপত্র পাঠ করেন সাংবাদিক আব্বাস হোসাইন আফতাব।

প্রয়াত স্টিফেন চৌধুরীর স্ত্রী শম্পা চৌধুরী অশ্র“ সজল কণ্ঠে তাঁর বক্তব্যে ডা. স্টিফেন চৌধুরীর জন্য সকলের কাছে দোয়া ও আশির্বাদ কামনা করেন। শম্পা যাতে সকলের ভালোবাসা নিয়ে বর্তমান আবাসস্থলে নিরাপদে বসবাস করতে পারেন সেজন্যও তিনি সকলের সহযোগিতা চান।

উলে­খ্য ২৩ ডিসেম্বর চন্দ্রঘোনা খীষ্ট্রিয়ান ও কুষ্ঠ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মং স্টিফেন চৌধুরী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অকালে পরলোকগমন করেন।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত