টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

রাঙ্গুনিয়ার ১৩ ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চুড়ান্ত

আব্বাস হোসাইন আফতাব
রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি

Rangunia-UP-Election--16-Apচট্টগ্রাম, ১৬ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস) :: রাঙ্গুনিয়ার ১৩টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের তৃণমূলের ভোটে প্রাথমিক ভাবে মনোনীতদের তালিকা শনিবার (১৬ এপ্রিল) কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। গত ১১ থেকে ১৪ এপ্রিল টানা চারদিন ইউনিয়ন ভিত্তিক অনুষ্ঠিত তৃণমূলের বর্ধিত সভার মাধ্যমে প্রার্থী তালিকা চুড়ান্ত করে শুক্রবার চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের কাছে হস্তান্তর করা হয়। জেলা আ.লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক প্রার্থী তালিকায় স্বাক্ষর করে তা আজ কেন্দ্রে নিয়ে যাবার দায়িত্ব দিয়েছেন উপজেলা আ.লীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদককে। তারা কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের কাছে তালিকা হস্তান্তর করবেন। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ৫ম ধাপের শিডিউল অনুযায়ি আগামী ২৮ মে রাঙ্গুনিয়া উপজেলার ১৩ টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। রাঙ্গুনিয়ার ১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে একমাত্র চন্দ্রঘোনা কদমতলি ইউপি নির্বাচন গত ২২ মার্চ প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সীমানা বিরোধ নিয়ে মামলাজনিত কারণে হোছনাবাদ ইউনিয়নের নির্বাচন আপাতত স্থগিত আছে। তবে এই ইউনিয়নেও আওয়ামীলীগের তৃণমূলের প্রার্থী নির্ধারিত আছে। বাকী ১৩টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের একাধিক প্রার্থী দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়ঝাঁপ করলেও শেষতক তৃণমূলের মাধ্যমে ১৩ জনকে মনোনয়ন প্রদানের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। ৫ম ও ৬ষ্ঠ ধাপের প্রার্থীদের তালিকা ১৫ এপ্রিলের মধ্যে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের কাছে পাঠাতে বলেছেন দলটি। উপজেলার মরিয়মনগর মরিয়মনগর ইউনিয়নে তৃণমূলের ভোটে মনোনীত আলতাফ হোসেন ইতিমধ্যে র‌্যাবের হাতে আটক হয়েছেন। বর্তমানে সে কারাগারে আছেন। এ অবস্থায় এই ইউনিয়নে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা মুজিবুল হক হিরু দলীয় প্রার্থী হতে যাচ্ছেন বলে সুত্র নিশ্চিত করেছেন। একই ভাবে অন্যান্য ইউনিয়ন গুলোতে বিতর্কিতদের নিয়ে দলের মনোনয়ন বোর্ড বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট পর্যবেক্ষণ করছেন বলে দলীয় সুত্র জানায়। এলাকায় দলের নাম বিক্রি করে বিভিন্ন দখলবাজীতে লিপ্ত এসব প্রার্থীদের ব্যাপারে খোঁজ খবর নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের হাতে রয়েছে। রাঙ্গুনিয়ার দুয়েকটি ইউনিয়নে তৃণমূলের ভোটে জিতে আসার পরও চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা থেকে বাদ পড়তে পারেন বলে দলীয় সুত্র জানায়। এসব ইউনিয়নে ত্যাগী ও প্রবীন নেতাদের মূল্যায়ন করা হতে পারে বলে দলের দায়িত্বশীলরা জানিয়েছেন। উপজেলা আ.লীগ সুত্র জানায়, উপজেলার পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় ইউনিয়ন আ.লীগের সিনিয়র সহসভাপতি গোলাম কবির তালুকদারকে একক প্রার্থী ঘোষণা করে রেজুলেশন করেছেন পদুয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের তৃণমূলের কাউন্সিলররা। একইভাবে শিলক ইউনিয়নে কোন প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী না থাকায় উত্তর জেলা আওয়ামীলীগ নেতা নজরুল ইসলাম তালুকদারকে একক প্রার্থী ঘোষণা করেন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ। রাঙ্গুনিয়ার অপর ১১ টি ইউনিয়নে একাধিক প্রার্থী থাকায় ইউনিয়ন কমিটির পৃথক বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয় পৌরসভা ভবনে। বর্ধিত সভায় প্রথমে সমঝোতার চেষ্ঠা করা হয়। সমঝোতা না হওয়ায় গোপন ব্যালটে ভোটের মাধ্যমে তৃণমূলের প্রার্থী নির্ধারণ করা হয়। এতে রাজানগর ইউনিয়নে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক(ভারপ্রাপ্ত) ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার, কোদালা ইউনিয়নে সাবেক চেয়ারম্যান আবদুল কাইয়ুম তালুকদার, সরফভাটা ইউনিয়নে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী, ইসলামপুর ইউনিয়নে উপজেলা আ.লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ইকবাল হোসেন চৌধুরী মিল্টন, দক্ষিণ রাজানগরে ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি আহমদ ছৈয়দ তালুকদার, লালানগর ইউনিয়নে উপজেলা আ.লীগ নেতা মীর তৌহিদুল ইসলাম কাঞ্চন, স্বনির্ভর রাঙ্গুনিয়ায় ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারন সম্পাদক মো. নুরুল­াহ, পারুয়া ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান জাহেদুর রহমান তালুকদার, বেতাগীতে ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি নুর কুতুবুল আলম, পোমরায় সাবেক চেয়ারম্যান কুতুব উদ্দিন চৌধুরী ও মরিয়মনগরে ইউনিয়ন আ.লীগের সহসভাপতি আলতাফ হোসেন তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে সর্বাধিক ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তবে মরিয়মনগর ইউনিয়নে তৃণমূলের ১৮ ভোট পেয়ে জয়ী হওয়া আলতাফ হোসেন বর্ধিত সভা শেষ হবার দুই ঘন্টা পরেই র‌্যাবের হাতে আটক হন। ফলে এই ইউনিয়নে ১৭ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মুজিবুল হক হিরুকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে চুড়ান্ত তালিকায় সুপারিশ করেছেন উপজেলা ও জেলা আওয়ামীলীগ। ১৩ জনের এই তালিকা নিয়ে ঢাকা যাচ্ছেন উত্তর জেলার ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ও রাঙ্গুনিয়া পৌরসভার মেয়র শাহজাহান সিকদার, উপজেলা আ.লীগের সভাপতি খলিলুর রহমান চৌধুরী ও সাধারন সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদার। চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আ.লীগের সভাপতি সাবেক রাষ্ট্রদুত নুরুল আলম চৌধুরী রাঙ্গুনিয়ার ১৩ প্রার্থীর তালিকা সুপারিশসহ কেন্দ্রে পাঠানোর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৫ম ও ৬ষ্ঠ ধাপের নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ১৫ এপ্রিলের মধ্যে কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশনা আছে।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত