টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

মেসিদের কান্নাভেজা বিদায়

spচট্টগ্রাম, ১৪ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস) :: চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বিদায় নিয়েছে মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের বার্সেলোনা। বুধবার রাতে নিজেদের মাঠে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ২-০ গোলে জিতে টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে ওঠে গেছে।

অথচ প্রথম লেগে ন্যু ক্যাম্পে ২-১ গোলের জয় পাওয়ায় এই ম্যাচে ড্র করলেই শেষ চারে স্থান করে নিতে পারত বার্সা। এই সহজ সমীকরণটিই মেলাতে পারেনি লুইস এনরিকের শিষ্যরা। পরিণতিতে মৌসুম জুড়ে ভালো খেলা বার্সেলোনা নিল বিদায়।

অ্যাটলেটিকোর মাঠে প্রথমার্ধের শুরু থেকেই বলের দখল বেশি ছিল বার্সেলোনার। কিন্তু আক্রমণে বেশি উঠেছে অ্যাটলেটিকো। তবে প্রথম আধ ঘণ্টায় গোলের খুব ভালো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি কোনো দলই। বার্সেলোনার খেলোয়াড়দের পায়ে বল গেলেই দুয়ো দিতে থাকে ভিসেন্তে কালদেরনের দর্শকরা।

৩৩ মিনিটে বিপজ্জনক জায়গা থেকে ফ্রি-কিক পেয়ে ক্রসবারের উপর দিয়ে মারেন গত চার ম্যাচে গোলের দেখা না পাওয়া মেসি। তবে মিনিট তিনেক পরই প্রথম গোলের দেখা পেয়ে যায় অ্যাটলেটিকো। সাউল নিগেসের দারুণ ক্রসে বিনা বাধায় লাফিয়ে হেডে গোল করেন গ্রিজমান (১-০)।

প্রথমার্ধে বলের ৭৩ শতাংশ দখল ছিল বার্সেলোনার। কিন্তু মেসি-নেইমার-সুয়ারেজ জুটি জ্বলে না ওঠায় গোলের বড় কোনো সম্ভাবনা তৈরি করতে পারেনি বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধে মরিয়া বার্সেলোনাকে ঠেকাতে পুরোপুরি রক্ষণাত্মক হয়ে যায় স্বাগতিকরা। বার্সেলোনা এই সুযোগে একের পর এক আক্রমণ চালালেও ফরোয়ার্ডদের ব্যর্থতায় গোল পায়নি।

এমন অবস্থায় সেমিতে উঠার জন্য মাত্র একটি গোলই দরকার ছিল। উল্টো শেষের দিকে পেনাল্টি হজম করে বার্সা। লুইসের পাস ঠেকাতে গিয়ে ডি-বক্সে বলে হাত লাগিয়ে দেন ইনিয়েস্তা। পেনাল্টি থেকে গোল করে স্টেডিয়ামের দর্শকদের আবারও উচ্ছ্বাসে মাতান জার্মান ফুটবলার গ্রিজমান। তখনও ম্যাচের কয়েক মিনিট বাকি। তবে জয়ের উৎসব শুরু হয়ে যায় অ্যাটলেটিকো শিবিরে।

শেষ অবধি মেসি-নেইমারদের মলিন মুখ। হতাশায় বারবার ক্যামেরা থেকে মুখ লুকানোর চেষ্টা। অন্যদিকে অ্যাটলেটিকো শিবিরে আনন্দের বন্যা।

মতামত