টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

ফটিকছড়িতে আইনশৃঙ্খলা সভা, ভোট কারচুপি আশঙ্কায় প্রার্থীরা

মীর মাহফুজ আনাম
ফটিকছড়ি থেকে

nirbachon-asonkoa-picচট্টগ্রাম, ১৩ এপ্রিল (সিটিজি টাইমস) ::  ফটিকছড়িতে আসন্ন ২৩ এপ্রিল ইপি নির্বাচনে ভোট কারচুপির আশঙ্কায় রয়েছেন বেশিরভাগ প্রার্থীরা। বিশেষ করে বিএনপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা এ আশঙ্কার কথা উপজেলা প্রশাসনকে তুলে ধরেছেন। আজ বুধবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রার্থীদের সাথে আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক মতবিনিময় সভায় এ আশঙ্কা প্রকাশ করেন প্রার্থীরা। এছাড়া বিএনপির একাধিক প্রার্থী তাদের প্রচারনায় বাঁধাসহ, হুমকি ধমকির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন।

সভায় মুক্ত আলোচনায় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও সংরক্ষিত নারী প্রার্থীরা অংশ নেন।

আলোচনায় দাঁতমারা ইউনিয়নের বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী ইদ্রিছ মিয়া বলেন, ‘আমার প্রচারনায় ব্যবহৃত সিএনজি গাড়িটি ভাংচুর করে দুর্বত্তরা, পোষ্টারতো নিয়মিত ছিড়েছেই, এমনকি আমার প্রচারনায় নিয়োজিত এক কর্মীকে চুরিকাঘাতে আহত করেছে। এখন ভয়ে আমার প্রচারনায় কোন কর্মী এগিয়ে আসছে না। আমি বিষয়টি নিয়ে থানায় মামলা দায়ের করতে চাইলেও থানা মামলা গ্রহন করেনি। বিষয়টি রিটার্নিং কর্মকর্তাকে অবহিত করেছি।’

ভূজপুর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটর সাইকেল প্রতীকের মাওলানা নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘আমার ইউনিয়নে কালো টাকার ছড়াছড়ি হচ্ছে। ইতিমধ্যে ভোট কেনার প্রতিযোগীতা শুরু হয়ে গেছে। আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

বখতপুর ইউনিয়নের আ‘লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান ফারুখুল আজম বলেন,‘

এলাকায় নির্বাচনী আচারণ বিধি লঙ্গন হচ্ছে; মোটর সাইকেল শোডাউনের নামে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে এলাকায় আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছে। ভোট কারচুপির চরম আশঙ্কায় আছি।’

হারুয়ালছড়ি ইউনিয়নের ধানের শীষ প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এম. এ কাশেম বলেন,‘ নৌকার প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনের আগের রাতেই ভোট গ্রহন করে ফেলা হবে বলে এলাকায় এমন প্রচারণা চালাচ্ছেন একটি গোষ্টি। সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহে আছি।’

রোসাংগিরী ইউনিয়নের বিএনপির ধানের শীষের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো.সাইফুদ্দিন বিগত দুই দফায় সারা দেশে যেভাবে ভোট কারচুপির ঘটনা ঘটেছে তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে ফটিকছড়িতে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রশাসনের প্রতি উদাত্ত¡ আহবান জানান।

সভায় উপস্থিত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম বলেন,‘ যেসব প্রার্থী তাদের আশঙ্কার কথা তুলে ধরেছেন, তা স্ব-স্ব রিটার্নিং কর্মকতারা নোট করেছেন। আমরা ফটিকছড়িতে একটি অবাধ-সুষ্ঠু ও নিরেপক্ষ নির্বাচন আয়োজনের প্রস্তুতি গ্রহন করছি।’

মতামত