টক অব দ্য চট্টগ্রাম
Ad2

নারী পুলিশ অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন সিএমপির দুই কর্মকর্তা

Policeচট্টগ্রাম, ২৯ মার্চ (সিটিজি টাইমস) : পেশাগত কাজে বিশেষ অবদানের জন্য চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের দুই নারী পুলিশ কর্মকর্তা ‘নারী পুলিশ অ্যাওয়ার্ড ২০১৬’ এর জন্য মনোনীত হয়েছেন। এই দুই কর্মকর্তা হলেন সিএমপি’র সিনিয়র সহকারী কমিশনার মাহমুদা বেগম ও চট্টগ্রামের সদরঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মর্জিনা আক্তার মর্জু।

আন্তর্জাতিক নারী দিবস ২০১৬ উপলক্ষ্যে এই প্রথম বারের মতো ‘নারী পুলিশ অ্যাওয়ার্ড’ প্রর্বতন করে বাংলাদেশ পুলিশ। ৫টি ক্যাটাগরিতে ৩২ জন নারী পুলিশ কর্মকর্তাকে এ অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত করা হয়েছে বলে পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রের খবর। ৩১ মার্চ পুলিশ সদর দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে মনোনীত পুলিশ সদস্যদের হাতে এই বিশেষ অ্যাওয়ার্ড তুলে দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

মেট্রোপলিটন পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ মার্চ রোববার সিএমপি’র দুই নারী পুলিশ সদস্য অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হওয়ার দাপ্তরিক পত্রটি সিএমপি সদর দপ্তরে পৌঁছে।

পেশাগত দায়িত্ব পালনে বিশেষ অবদান রাখায় ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছেন সিএমপি’র এই দুই নারী পুলিশ কর্মকর্তা। চট্টগ্রাম মহানগরীর যানজট নিয়ন্ত্রণ ও অবহেলিত-নির্যাতিত নারীদের আইনি অধিকার রক্ষা ও পূনর্বাসনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছেন চট্টগাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারি কমিশনার মাহমুদা বেগম। একই ভাবে মামলা অপরাধ নিয়ন্ত্রণে সাহসিতকার সাথে পেশাগত দায়িত্ব পালনে প্রশংসিত হয়েছেন সিএমপি’র পরিদর্শক মর্জিনা আক্তার মর্জু। মেডেল অফ ক্যারেজ ক্যাটাগরিতে এই দুই নারী পুলিশ কর্মকর্তা অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হন।

প্রথমবারের মতো প্রবর্তিত বাংলাদেশ পুলিশের এই নারী পুলিশ অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত নারী পুলিশ সদস্যরা হলেন:

বাংলাদেশ পুলিশ লিডারশীপ ক্যাটাগরিতে- মিলি বিশ্বাস পিপিএম (ডিআইজি), ইয়াসমিন গফুর পিপিএম (এডিশনাল ডিআইজি), আমেনা বেগম বিপিএম (পুলিশ সুপার), ফরিদা পারভিন এসএস (প্রোটেকশন), শামসুন্নাহার (পুলিশ সুপার), আবিদা সুলতানা (অতিরিক্ত উপ কমিশনার), আসমা সিদ্দিকা মিলি (অতিরিক্ত উপ কমিশনার), মাহমুদা আফরোজ লাকি (সিনিয়র সহকারি কমিশনার)।

মেডেল অফ ক্যারেজ ক্যাটাগরিতে- মাহমুদা বেগম (সিনিয়র সহকারি কমিশনার, সিএমপি), হোসনে আরা বেগম (সহকারি কমিশনার), শাহেদা বেগম (এএসপি, র‌্যাব), মাকসুদা লিজা (এএসপি, ফোর্স) ,মর্জিনা আক্তার মর্জু, (পরিদর্শক, সিএমপি), মিতা রানী বিশ্বাস (কনেস্টেবল) , তাহমিনা আক্তার (কনেস্টেবল), স্বপ্না আক্তার (কনেস্টেবল) ।

এক্সিলেন্স ইন এ্যাক্ট ক্যাটাগরিতে- মাকসুদা আক্তার (সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার), মোহতাবেমা আশরাফি খানম, পরিদর্শক (নিরস্ত্র), কুইন আক্তার (উপ-পরিদর্শক), রাজিয়া বেগম (উপ-পরিদর্শক), মোছা. নাসিমা আক্তার ( সহকারি উপ-পরিদর্শক), মোসাঃ রেজিনা বেগম (সহকারি উপ-পরিদর্শক), তাসলিমা আক্তার (কনস্টেবল), তানজিনা মাসুদ (কনেস্টেবল)।

কমিউনিটি সার্ভিস ক্যাটাগরিতে- শামীমা বেগম পিপিএম (পুলিশ সুপার), খন্দকার নূর রেজওয়ানা পারভীন (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার), মেরিন সুলতানা (সিনিয়র সহকারি কমিশনার )।

পিচ কিপিং মিশন ক্যাটাগরিতে- শাহিনা আমীন (পুলিশ সুপার), সামসুন নাহার (বিশেষ পুলিশ সুপার), আল বেলী আফিফা (অতিরিক্ত উপ কমিশনার), এলিজা শারমীন পিএইচডি (অতিরিক্ত উপ কমিশনার) ও রেহানা পারভীন (উপ-পরিদর্শক)।

সিটিজি টাইমসে প্রকাশিত সংবাদ সম্পর্কে আপনার মন্তব্য

মতামত